কাতার বিশ্বকাপ দেখার জন্য সৌদি আরবের জেদ্দা শহর থেকে দোহার উদ্দেশে পায়ে হেঁটে রওনা দিয়েছেন এক যুবক। সৌদি পর্যটক আবদুল্লাহ আল-সালামি নামের ওই যুবক চলতি মাসের ৭ তারিখে দোহার উদ্দেশে রওনা দিয়েছে।

 

ওই যুবকের কাতারের রাজধানী দোহায় পৌঁছাতে দুই মাসের মত সময় লাগবে বলে জানা গেছে। নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে আল-সালামি জানিয়েছেন তার যাত্রা ১, ৬০০০ কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করবে।

 

১৫ সেপ্টেম্বর থেকে সৌদির ওই অভিযাত্রী তার টুইটার অ্যাকাউন্টে যাত্রার শুরু থেকে স্ন্যাপচ্যাটে নথিভুক্ত বিভিন্ন অবস্থান এবং স্টেশনের বেশ কয়েকটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন।

 

একটি ভিডিওতে তিনি তার অনুসারীদের বলেন, আমি বোতলে লোহিত সাগরের পানি ভরে দেব এবং আমি আরব উপসাগরে আমার ভ্রমণের সময় এটি আমার সাথে নিয়ে যাব। অন্য একটি ভিডিওতে তিনি আনন্দের সাথে বলেন, “এটি একটি উন্মত্ত অভিজ্ঞতা এবং দুঃসাহসিক কাজ হবে।

 

অস্ট্রেলিয়া, মেক্সিকো এবং অন্যান্য জায়গায় আমার আগের সমস্ত অভিজ্ঞতা থেকে আলাদা এবং এটি আমার হৃদয়ের সবচেয়ে কাছের হবে। কারণ এটি কেবল আমাদের দেশে এবং এর মধ্যে রয়েছে। আমাদের লোকেরা, এবং আমরা উপজাতিদের উপর দিয়ে যাব।”

 

কিছুদিন আগে স্পেনের এক ফুটবল ভক্ত মাদ্রিদ থেকে হেঁটে দোহা রওনা দিয়েছেন। বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্টেডিয়ামে হাজির থাকার ব্যাপারে আশাবাদী সান্তিয়াগো সানচেজ কোগেডর নামের এই ফুটবল পাগ’ল।

 

৪২ বছর বয়সি সান্তিয়াগো খেলাধুলা ভালবাসেন। গত জানুয়ারিতে কাতারের উদ্দেশে মাদ্রিদের সান সেবাস্তিয়ান দে লস রেয়েসের মাতাপিনোনেরা স্টেডিয়াম থেকে হাঁ’টা শুরু করেন তিনি।

 

সান্তিয়াগো সানচেজ কোগেডর তার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যা’কাউন্টে পোস্ট করা একটি ভি’ডিওতে ই’ঙ্গিত দিয়েছেন, তিনি এখন কুর্দিস্তান অঞ্চলের জাখো নামক একটি গ্রামে আছেন এবং শীঘ্রই সেখান থেকে ইরানের সীমান্ত অতিক্রম করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.