কাতারে আলখিছা এলাকায় আজ সোমবার সড়ক দুর্ঘটনায় মা’রা গেছেন চট্টগ্রামের প্রবাসী শাহজাহান। তাঁর আনুমানিক বয়স (৪০) বছর। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। গত দেড় দশকের বেশি সময় ধরে তিনি কাতারে বাস করতেন।

 

শাহজাহানের প্রতিবেশী কুতুবউদ্দীন জানান, সকালে কাজে গিয়েছিলেন শাহজাহান। এ সময় কর্মস্থল থেকে পেইন্টিংয়ের রোলার কিনতে দোকানে গিয়ে আর ফিরে আসেননি তিনি।

 

পরে বিভিন্ন জায়গায় তাঁর অনুস’ন্ধান করা হয়। বিকেলে কিছুক্ষণ আগে নিশ্চিত হওয়া গেছে, পাশেই এক সড়ক দুর্ঘটনায় তাঁর মৃ’ত্যু হয়। বর্তমানে তাঁর লা’শ হামাদ মেডিকেলের ম’র্গে রয়েছে।

 

মরহুম শাহজাহান আল রাইয়ান কাদিমে কাতার ফাউন্ডেশনের তিন নাম্বার গেটের বিপরীত এলাকায় থাকতেন। তার বাড়ি চট্টগ্রাম জেলার লোহাগড়া থানায়। তাঁর পরিবার সম্পর্কে বিস্তারিত এখনো জানা যায়নি।

 

এদিকে গতকাল মো. সুমন মিয়া (৩৫) নামে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার এক কাতার প্রবাসীর লাশ দেশে এসেছে।সোমবার বেলা ১১টার দিকে সুমনের ম’রদেহ দেশে ফিরেছে।

 

বাবা কা’ন্নাজ’ড়িত কণ্ঠে বলছেন, ‘আমার ধন এসে বিয়ে করার কথা ছিল এইডা আল্লাহ কি করল। গত ৭ সেপ্টেম্বর কাতারে সড়ক দু’র্ঘটনায় নিহ’ত হন তিনি।

 

পরে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী সুমনের ম’রদেহ দেশে আনেন পরিবার। সুমন মিয়া উপজেলার উত্তর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের চানপুর দক্ষিণপাড়া মো. মান্নান মিয়ার বড় ছেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.