বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক শিরোপা জিতেছে নারী ফুটবল দল। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে নেপালকে হা’রিয়ে জয়োল্লাসে মে’তেছে সাবিনা-মারিয়ারা। এই আনন্দে ভাসছে দেশের ফুটবলাঙ্গন।

 

এমনকি তাদের নিয়ে উৎসাহ-উদ্দীপনা তু’ঙ্গে রয়েছে। ছাদ খোলা বাস, সজ্জা, ফুলেল শুভেচ্ছা, দিনভর মিডিয়া কাভারেজ সবই হয়েছে। কিন্তু সামাজিক মাধ্যমে এ নিয়ে নানা রকম ধ’র্ম বি’দ্বে’ষী মন্তব্যও দেখা যাচ্ছে।

 

এসব নিয়ে কথা বলেছেন বিশিষ্ট ইসলামি বক্তা ও গবেষক মিজানুর রহমান আজহারী। বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাত নয়টার দিকে নিজের অফিসিয়াল ফেসবুকে শিরোপা জয় এবং ইস’লাম ‘বিদ্বে’ষী মনোভাব নিয়ে বিস্তর একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন আজহারী।

 

পাঠকদের জন্য স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলোে: সাফ উইমেন চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের নারী ফুটবল দলের অর্জনকে কেন্দ্র করে দেশের আম জনতা যখন বিজয়োল্লাসে ব্যস্ত, ঠিক একই ঘটনাকে পুঁজি করে কিছু ধূর্ত লোক ইস’লাম বি’দ্বে’ষের ন’গ্ন উ’ন্মাদ’নায় ব্যস্ত। দেশ ও দশের কাজে যাদের সি’কিভাগ অবদান নেই।

 

আরে ভাই, সেলিব্রেট করার একটা উপল’ক্ষ এসেছে তো সেলিব্রেট করুন। এ বিজয়কে ইসলামের বি’রু’দ্ধে দাঁ’ড় করাচ্ছেন কেন? খেলোয়াড় মেয়েগুলো তো স্রষ্টার প্রতি কৃত’জ্ঞতা স্বরুপ মাঠেই সিজদায় লু’টিয়ে পড়তে দেখলাম। তাদেরও তো কোন এ’ন্টি ইস’লাম এটিচি’উড নেই। কিন্তু কিছু উজবুক রীতিমত ব্যাপারটাকে লেজেগোবরে করে ফেলেছে।

 

একটা পজি’টিভ বিষয়কে ভিন্ন আঙ্গিকে ম্যানুপুলেট করে তাদের এই বস্তা পঁ’চা সস্তা ইস’লাম বি’দ্বেষে’র কূ’টকৌশল ইসলা’মপ’ন্থীরা বহু আগে থেকেই অবগত। দেশের আম জনতাও অবগত যে— দেশের বিভিন্ন অর্জন ও সংস্কৃতিকে নানান চেতনা ও অ’পসংস্কৃ’তির রঙ মা’খিয়ে দেশের ইসলা’মপ’ন্থীদেরকে কীভাবে বারবার কো’ণঠা’সা করে রাখার অপপ্র’য়াস চালানো হয়।

 

ইনশাআল্লাহ, ইসলাম প্রিয় এই মুসলিম দেশে ইসলাম বি’দ্বে’ষীদে’র র’ঙ তুলির আ’চড় আর গোবর ভরা মাথার ফাঁ’কা বু’লি’র ফাঁ’পর, কোনোটাই জন-মানুষের মনে ইসলাম ও আলেম বি’দ্বে’ষের বি’ষবা’ষ্প ঢোকাতে পারবে না। বরং তাদের কূ’টকৌ’শল বু’মেরাং হয়ে তাদের অসল চেহারাটাই প্রকাশ করে দেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.