কাতারের বিমানবন্দরগুলোর নতুন এয়ারস্পেস ডিজাইনে ফ্লাইট পরিচালনার ক্ষমতাকে উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়িয়েছে। ফিফা বিশ্বকাপ চলাচালীন প্রতি ঘন্টায় ১০০টি ফ্লাইট পরিচালনা করতে সক্ষম বলে একজন কর্মকর্তা জানিয়েছে।

 

কাতার এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল কর্মকর্তা মোহাম্মদ আল আসমাখ বলেছেন, কাতারের মেগা স্পোর্টিং ইভেন্টের সময় প্রতিদিন প্রায় ১,৬০০টি এয়ার ট্রাফিক চলাচলের আশা করা যায়।

 

৮ সেপ্টেম্বর থেকে বিশ্বকাপের সাথে সম্পর্কিত প্রকল্পগুলো সক্রিয় করা শুরু হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে নতুন এয়ারস্পেস ডিজাইন প্রকল্প। সম্প্রতি কাতারে এক রেডিওর সাথে সাক্ষাৎকারের সময় মোহাম্মদ আল আসমাখ জানান, নতুন এয়ারস্পেস ডিজাইনে তিনটি ফ্লাইট পাশাপাশি অবতরণ করতে পারে।

 

এর মধ্যে দুটি ফ্লাইট হামাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এবং একটি দোহা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। তাছাড়া তিনটি ফ্লাইট পাশাপাশি দুটি বিমানবন্দর থেকে একই সময়ে টেক অফ করতে পারে। নতুন এয়ারস্পেস ডিজাইন উভয় বিমানবন্দরের ফ্লাইট পরিচালনার ক্ষমতা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি করেছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

 

তিনি বলেন, ফ্লাইট অবতরণে বিলম্ব এড়াতে প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করে কাতারে বিমান চলাচল নিয়ন্ত্রণের জন্য এয়ার ট্রাফিক ফ্লো ম্যানেজমেন্টও স্থাপন করা হয়েছে।

 

তিনি বলেন, বেশ কয়েকটি ইউনিটে এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলার নিয়োগ করা হয়েছে। যেমন: নজরদারি করার জন্য টাওয়ার, আবহাওয়া নিয়ন্ত্রণ, দোহা ফ্লাইট ইনফরমেশন অঞ্চল, হামাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং দোহা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর।

 

কাতারের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় মেগা স্পোর্টিং ইভেন্টের বাকি আর কয়েক দিন। ২ মাস সময়ও হাতে নেই কাতারের। তাই আগে থেকেই শুরু হয়েছে সব প্রকল্পের বাস্তবায়ন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *