ঢালিউডের সুপারষ্টা’র খ্যা’ত নায়ক শাকিব খানকে নিয়ে বিত’র্ক যেনো পিছু ছা’ড়ছে না। অপু বিশ্বাস-বুবলীর পর এবার জানা গেলো আরেক স্ত্রী’র নাম যেখানে রয়েছে এক স’ন্তানও। গল্পের শুরুতে চেনা যাক শাকিব খানের ক’থিত পুত্র রাহুল খানের গল্প। বেশ লাজুক প্র’কৃতির ছেলে। নাম রাহুল খান।

 

বাংলামো’টর একটি ওয়ার্কশপে মাত্র তিন হাজার টাকার বেতনে চা’কুরী করে। কাজ ছা’ড়া খুব একটা কথা বলে না। একা একা থাকতে পছ’ন্দ করে। পরিবারের প্রস’ঙ্গ আসলেই চু’পসে যায়। বিশেষ করে বাবার প্রস’ঙ্গ আসলেতো একেবারেই চ’মকে যায়। কিসের যে’ন একটা শূ’ন্যতা খেলা করে তার দু’চো’খ জু’ড়ে। কিন্তু মুখে কোনো কথা নেই।

 

রাহুলের মায়ের গল্প: কিন্তু রাহুলের মা কে? রাহুলের মায়ের নাম রাত্রি। এফডিসিতে সবাই তাকে এক নামে চে’নে। তার মায়ের ক্যা’রিয়া’রের শুরু হয়েছিল এই সময়ের হা’র্টথ্রু’ব হিরো শাকিব খানের সাথেই। অনে’কেই হয়তো জানেন না শাকিব খানের আসল নাম মাসুদ রানা। সেই মাসুদ রানার কাছের ব’ন্ধু ছিলেন রাত্রি। একসময় শাকিবকে না’চ, গান, এমনকি তাকে তার বাসায় থাকার জা’য়গা পর্য’ন্ত করে দিয়েছিলেন রাত্রি।

 

সৌন্দর্য্য আর না’চের পা’রদ’র্শীতার কারনে রাত্রির একটা গ্রহণযো’গ্যতাও তৈরি হয়েছিল। এমন কি শাকিব খানকে নিয়ে অনেকের কাছে প’রিচয় করে দিতেন তিনি। রা’ত্রির ভাষ্যমতে, হি’রা-চু’নি-পা’ন্না সিনেমার জন্য শাকিবকে কি’নে দিয়েছিল হাজার টাকা দামের একটি দামি কো’র্ট। শাকিব এখন বড় সুপারস্টা’র হয়ে গেছে বলেই এখন হয়তো রাত্রিকে তার নজরে পড়ে না।

 

কিন্তু আজও শাকিবের কোন শু’টিং এফডি’সিতে থাকলে রাত্রি ঠিক থাকতে পারেন না। শাকিবকে দেখার জন্য আ’জও খাওয়া দাওয়া ভু’লে এফডি’সির চারপাশ পা’গলে’র মত ঘুরতে থাকেন। কিন্তু সে খবর কে রা’খে! কিন্তু এই ত’থ্যের ভি’ত্তি কি? রাত্রির কথা ছাড়া কোনো জো’র প্রমাণ না মিললেও এফডিসি সং’শ্লিষ্ট অনেকেই শাকিব-রাত্রির ব্যা’পারটা জানেন। প্রো’ডাকশন বয় থেকে শুরু করে অনেক সাংবাদিকের কাছেও এটা ও’পেন সি’ক্রে’ট। নিকট অতী’ত না হওয়ার কারনেই হয়তো কেউ আর এটার চ’র্চা করেন না। কারো স’ঙ্গে আলা’প করতে গেলেই কেউ রহ’স্যজ’নক হাসি হা’সেন অথবা হেসেই উ’ড়িয়ে দেন।

 

বিষয়টি নিয়ে সাংবাদিক ওমর ফারুক তার ফেসবুকে আজ শুক্রবার একটি পোষ্ট করেন তা হুব’হু তুলে ধরা হলো: “২০০৮/২০০৯ এর দিকে দৈ’নিক ভোরের কাগজের বিনোদন পতায় একটি ছবি প্রকা’শ পায়। চিত্র না’য়িকা রাত্রি আর শাকিব খানের বিয়ের ছবি। ভো’রের কা’গজের বিনোদন সম্পাদ’ক Jahangir Biplob ভাই এই ছবিটি অনেক ক’ষ্টে জো’গা’ড় করেন। আমিও কাজ করি ভো’রের কাগজে তখন।

 

তখন চাইলেই ছবি ই’নবক্সে’ চলে আসতো না, ক্যা’মেরায় তোলা ছবি স্ক্যা’নিং করে পত্রিকার পাতায় ছা’পাতে হতো। আর একটা ছবি জো’গাড় করতে খবর হয়ে যেত, পকেটের টাকা খ’রচ হতো। ছবিটি প্র’কাশের পর তেলে বে’গুনে জ্ব’লে ওঠেন শাকিব খান। এফডিসিতে ভোরের কাগজ নি’ষি’দ্ধ ঘোষণা করা হয়। জাহা’ঙ্গীর বিপ্লব এবং ওমর ফারুক কে এফডিসিতে পাই’লেই না’কি মা’রবে’ন শাকিব খান। খবর শু’নে বি’প্লব ভাইয়ের মা’থা গ’রম, আমি জুনিয়র ত’বুও উ’ত্তেজ’না কম না! বিপ্লব ভাইকে বললাম চলেন এখনই এফডিসিতে যাবো। দেখি শাকিব কোন … ছি’ড়ে!

 

প্রয়াত আ’ওলাদ ভাই তখন এফডিসি তে যা বলেন তাই হয়। আওলাদ ভাই শাকিব কে ধ’মকা’লেন, কেন এমন কথা বললো আর আমাদের বো’ঝালেন ছে’লে’টার ক্যারিয়ার আছে চে’পে যা। আমরা চে’পে গেলাম, শাকিব খানও চে’পে গেলো। প্রশ্ন হলো, শাকিব খান তাহলে প্রথম সন্তান রা’হুল খান এবং রাত্রির সাথে কেনো ‘অবি’চার করছেন? জয় এবং বীর স্বী’কৃতি পেলে রাহুল কি দো’ষ করলো?

 

বি’নোদন সাংবাদিকগণ এই বিষয়টা নিয়ে এখন আ’ওয়াজ তুলেন। একজন অ’সহায় স্ত্রীকে তার স্বা’মীর অ’ধিকার আর বাবার আ’দর থেকে ব’ঞ্চিত এক সন্তানকে বা’বার অ’ধি’কার পেতে সহায়তা করতে পারেন।” এ বিষয়য়ে শাকিব খানের সাথে যোগাযোগের চে’ষ্টা করা হলে তিনি ফোন রি’সিভ করেন নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *