পৃথিবীর সবচেয়ে দামি ফুটবল বিশ্বকাপের সাথে থা’কতে খুব খুশি প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এবারের বিশ্বকা’পে খরচ হবে ২২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ২২ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা। এরস’ঙ্গে প্রবাসীরা এখন বাড়’তি কিছু আয়েরও পথ খুঁ’জছেন।

 

কাতারের একটি গণমাধ্যম বলছে, সবচেয়ে দামি বিশ্বকাপের স’ঙ্গে থাকতে পেরে খুশি প্রবাসী বাংলাদেশিরা। টিকিট আ’গেই ছিল এবার মিলেছে হায়া কার্ড। এখন আর খেলা দেখতে বা’ধা নেই। স’ঙ্গে বাড়তি আয়ের পথও খুঁজছেন তারা।

 

মধ্যপ্রা’চ্য মানেই পেট্রো ডলারের চম’ক। সেখানেই ব্যয়ব’হুল বিশ্বকাপ দেখার অপে’ক্ষায় ফুটবল দুনিয়া। কাতারের গণমাধ্যম বলছে, ২০২২ বিশ্বকাপে খরচ ২২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। টাকার হিসাবে যা প্রায় ২২ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা। গত আটটি বিশ্বকাপের মধ্যে যা সবচেয়ে বেশি।

 

শুধু বেশি বললে ভু’ল হবে। ২০১৮ রাশিয়া আসরের চেয়ে বিশ গুন বেশি অর্থ খরচ হ’চ্ছে এবারের আসরে। এতদিন সবচেয়ে বেশি খরচের রেক’র্ড ছিল ব্রাজিলের। কাতার বিশ্বকাপ বা’জেটের বেশিরভাগ অর্থ খরচ হয়েছে স্থা’পনা নির্মাণে।

 

আরও বিশেষভাবে বললে স্টেডিয়াম তৈরিতে। স’ঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপন। মেট্রো, সড়ক, বিমানবন্দর আধুনিকায়নেও বিপু’ল ব্যয় হয়েছে। যেখানে জ’ড়িয়ে আছে বাংলাদেশিদের শ্রম। যারা নেপ’থ্য কারিগর তাদের খেলা দেখা হবে কিনা তা নিয়ে বেশ সং’শ’য় ছিল।

 

অবশেষে তা কে’টেছে। টিকেট তো মিলছেই এরই মধ্যে অনেকে হায়া কার্ডও হাতে পেয়েছেন। এখন শুধু ক্ষ’ণ গণনা। শুধু খেলা দেখা নিয়েই উ’চ্ছ্বসিত নন প্রায় চার লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি।

 

বিশ্বকাপ ঘিরে বাড়তি আয়ের সু’যোগও থাকছে তাদের। এরই মধ্যে কাতারের আবাসন ও প’র্যটন খাতে বড় ধরনের পরিবর্তন দৃ’শ্যমান হতে শুরু করেছে। রয়েছে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির সুযোগও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *