আয়োজক দেশ হিসেবে প্রথমবারের মতো এবারের বিশ্বকাপে খেলার সৌভা’গ্য হচ্ছে কাতারের। আসর শুরুর আগে দোহার জসিম বিন হামাদ স্টেডিয়ামে অনুশীলনে ব্যস্ত সময় কা’টিয়েছে স্বাগতিক দলটি।

 

এ সময় কাতার সম’র্থকদের ভালোবাসায় সি’ক্ত হন ফুটবলাররা। শুভেচ্ছা বিনিময় করেন ভ’ক্তদের সঙ্গে। ২০১০ সালের ডিসেম্বরে ফিফা বিশ্বকাপের আয়োজক হয় কাতার। এরপর পার হয়েছে ১২ বছর। অবশেষে সব প্র’স্তুতি সম্পন্ন করে নভেম্বরে মরুর বু’কে বসতে যাচ্ছে দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ।

 

তারই সুবাদে আয়োজক দেশ হিসেবে এবারই প্রথম বিশ্বকাপে খেলার সৌভা’গ্য হচ্ছে কাতারের। বিশ্বকাপ সামনে রেখে এখনো চূ’ড়ান্ত দল ঘোষণা হয়নি কাতারের। তবে প্রস্তুতি অব্যাহ’ত আছে স্বাগতিক দলটির। তারই ধারাবাহিকতায় আল সাদের হোম ভেন্যু জসিম বিন হামাদ স্টেডিয়ামে হাজির পু’রো দল।

 

এ সময় স্টেডিয়ামের গ্যালা’রিজু’ড়ে ছিল হাজারো কাতার সম’র্থকদের ভিড়। কাতারের পতাকা উ’ড়িয়ে আর স্লোগান দিয়ে প্রিয় দলের ফুটবলারদের স্বাগত জানান ভ’ক্তরা। এ সময় কাতার দলের অধিনায়ক হাসান আল হাইদুসসহ অন্যান্য খেলোয়াড় একে একে হাজির হন মাঠে।

 

ভালোবাসায় সি’ক্ত হন সমর্থকদের। ফুটবলাররাও শুভেচ্ছা বিনিময় করেন ভ’ক্তদের স’ঙ্গে। ১৯৭০ সালে বাহরাইনের বিপ’ক্ষে প্রথম নিজেদের অফিশিয়াল ম্যাচ খেলে কাতার। ১৯৮০ সালে এশিয়ান কাপে প্রথম অ’ভিষেক হয় দলটির। এখন পর্যন্ত দশবার এশিয়ান কাপ খেলা কাতার ২০১৯ আসরে জেতে শিরো’পা।

 

এবারই প্রথম ফুটবলের বিশ্ব আসরে খেলার অভি’জ্ঞতা হচ্ছে দলটির। বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে সম্প্রতি বেশকিছু আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচও খেলেছে কাতার। যেখানে তরুণ খেলোয়াড়দেরই বেশি প্রাধা’ন্য দিয়েছেন স্প্যানিশ কোচ ফেলিক্স সানচেজ।

 

বিশ্বকাপের জন্য ২৬ সদস্যের চূ’ড়ান্ত স্কোয়াড এখনো ঘোষণা হয়নি। তবে, তার আগে ভালোভাবে যাচাই বাছাই করে নিচ্ছেন কোচ। ফরোয়ার্ড, মিডফিল্ড, ডিফেন্স কিংবা গোলপোস্ট, সব বিভাগ দেখে চুলচে’রা বিশ্লেষণ করে তবেই চূড়ান্ত করা হবে বিশ্বকাপ দল। ২০ নভেম্বর আল বায়েত স্টেডিয়ামে ইকুয়েডরের বিপক্ষে কাতারের উদ্বোধনী ম্যাচ দিয়েই মাঠে গড়াবে বিশ্বকাপ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *