ময়মনসিংহের ত্রিশালে ট্রাকচা’পায় মায়ের পেট ফেঁ’টে জ’ন্ম নেয়া সেই শিশু ফাতেমা ডা’য়রি’য়ায় আ’ক্রা’ন্ত। সেই সাথে ফাতেমার সাথে দে’খা করার জন্য সময় বে’ধে দেয়া হয়েছে এবং শিশুর সাথে দেখা করতে যাওয়া লোকদের সাথে অ’শোভ’ন আ’চরণ করার অভি’যোগ উঠেছে।

 

শনিবার (৮ অক্টোবর) দুপুরের দিকে শিশু ফাতেমার দাদা মো. মোস্তাফিজির রহমান এমন অভি’যোগ করেন। এ বিষয়ে ফাতেমার দাদা মোস্তাফিজুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, আজ ছোটমণি নিবাসে আসার পর আমাদের দেখা করার ২০ মিনিট সময় বে’ধে দেয়।

 

পরে আমি না গিয়ে শিশুর দা’দি সুফিয়া খাতুন ও আমার নাতনি জান্নাতকে পা’ঠাই। তারা গিয়ে দেখে এসে আমাকে জানায় ফাতেমা ডা’য়রি’য়া হয়েছে ও স্বা’স্থ্যের অবন’তি হয়েছে। একই সাথে তার শরী’রে অসংখ্য ম’শার কা’মড়ের চি’ন্হ’ রয়েছে। পরে এসব বিষয়ে জানতে চাইলে আমার সাথে বাজে আ’চরণ করে ছোটমণি নি’বাসে কর্মচারীরা।

 

এর কিছু’ক্ষন পরেই চিকিৎসার জন্য ফাতেমাকে আমার সামনে দিয়েই হাসপাতালে নিয়ে গেছে। তবে, আমি যেতে চাইলে তারা আমাকে নেননি। পরে আমি বের হয়ে চলে আসছি। গত ৩০ সেপ্টেম্বর ফাতেমার সাথে দেখা করতে গেলে ৩০ মিনিট সময়ের জন্য আমা’দের দেখা করতে দেয়। ওই দিনও আমাদের সাথে বা’জে আ’চর’ণ করে।

 

অ’সুস্থ হওয়া বা হাসপাতালে নেয়ার বিষয়টি অ’স্বীকার করে আজিমপুরে অ’বস্থিত ছোটমণি নিবাসের উপ-ত’ত্বাবধায়ক জুবলি বেগম রানু গণমাধ্যমকে বলেন, ওই শিশুর দাদা প্রতি সপ্তাহে এসে সারাদিন বসে থাকে। তাদের খাওয়া দাওয়া করাতে হয়। তাছাড়া, আমার এখানে মহিলা জ’গৎ।

 

এখানে একজন পুরুষ মানুষ সারাদিন কিভাবে থাকে। তাই, তাদের জন্য ৩০ মিনিট সময় বে’ধে দেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, বাচ্চা লালনপালন করার দায়িত্ব আমাকে দিয়েছে শিশু কল্যাণ বোর্ড। বাচ্চা দেখাশোনা করার দায়িত্ব আমার। কখন বাচ্চাকে হাসপাতালে নেব, চিকিৎসা করা’ব সেটা আমাদের বিষয়। তিনি অ’ভিযো’গ দিলে শিশু কল্যাণ বো’র্ড দিতে পারেন।

 

শিশুর অ’সুস্থতার কথা আবারও জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাচ্চাটার সম’স্যা হচ্ছে, সে দিনে তিন থেকে থেকে চারবার পা’য়খা’না করে। এটা কোন সমস্যা না বলেও জানান তিনি। গত ১৬ জুলাই ত্রিশালে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক পারাপারের সময় ট্রাক-চা’পায় এক দ’ম্পতি ও তাদের ছয় বছরের মেয়ে নিহ’ত হয়।

 

এসময় ট্রাক চাপায় অ’ন্তঃস’ত্ত্বা মায়ের পে’ট ফে’টে এক মেয়ে সন্তান জন্ম দেন। উপজেলার কোর্ট ভবন এলাকায় এ দু’র্ঘট’না ঘটে। শিশুটির নাম রাখা হয় ফাতেমা। পরে শিশুটিকে রাজধানীর আজিমপুরে অবস্থিত ছোটমণি নিবা’সে আনা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *