দেশে পৌঁ’ছেছে নতুন বাংলাদেশি এয়ারলাইন্স প্রতিষ্ঠান এয়ার অ্যাস্ট্রার প্রথম এয়ারক্রাফট। রোববার (৯ অক্টোবর) এয়ার অ্যাস্ট্রা জানায়, এটিআর ৭২-৬০০ (S2-STB) মডেলের এয়ারক্রাফটটি সম্প্র’তি দেশে এসেছে।

 

তারা জানায়, বুলগেরিয়ার সোফিয়া থেকে বুধবার (৫ অক্টোবর) রওনা হয়ে মিশরের কায়রো, ওমানের মাস্কাট ও ভারতের আহমেদাবাদ হয়ে দেশে পৌঁছেছে এয়ার’ক্রাফটটি।

 

এর আগে বাংলাদেশে ফ্লাইট পরিচালনার জন্য চা’রটি উড়োজাহাজ লিজ নেওয়ার কথা জানায় সদ্য প্রতি’ষ্ঠিত বেসরকারি এয়ারলাইন্স এয়ার অ্যাস্ট্রা। বাকি তিনটি এয়ারক্রাফট শিগগি’রই যোগ দেবে বলে জানায় তারা।

 

সম্প্রতি এয়ার অ্যাস্ট্রার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইমরান আসিফ বলেন, এয়ার অ্যাস্ট্রা চা’রটি এটিআর ৭২-৬০০ মডেলের প্লেন লি’জ নিয়েছে। যাত্রা শুরুর প্রথম দিন থেকে বাংলাদেশের অ’ভ্যন্তরীণ রুটের প্রতিটি বিমানবন্দরেই ফ্লাইট চালাবে এয়ার অ্যাস্ট্রা।

 

এদিকে শাহজালালে স্থান সং’ক’ট হওয়ায় এয়ার অ্যা’স্ট্রাকে আপাতত ঢাকার বাইরে চট্টগ্রাম কিংবা সিলেট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পার্কিং স্টে’শন করতে বলেছে বেসরকারি বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান জানান, বর্তমানে শাহজালাল বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল নি’র্মাণের কাজ চলছে।

 

অ্যাপ্রোনে উড়োজাহাজ পার্কিংয়ে স্থা’ন সংক’ট প্রকট আ’কার ধারণ করেছে। আপাতত বেজের জায়গা বরা’দ্দ দেওয়া সম্ভব নয়। ফলে কার্যক্রমে আসতে চাইলে এয়ার অ্যাস্ট্রাকে চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এবং সিলেটের ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে যেকোনো একটিকে বে’ছে নিতে হবে।

 

২০২১ সালের মাঝামাঝি সময়ে বেবিচ’কের কাছে এয়ারলাইন্স প্রতিষ্ঠান হিসেবে তালিকাভু’ক্তি ও ফ্লা’ইট পরিচালনার আবেদন জমা দেয় এয়ার অ্যাস্ট্রা। ৪ নভেম্বর তারা এ’নওসি পায়। প্রাথমিকভাবে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহে ফ্লাইট পরিচালনার পরিকল্পনা করলেও ক’রো’না পরিস্থিতি এবং বিমানবন্দরে উড়োজাহাজ রাখার স্থান সংক’টের কারণে অ’পারেশ’ন শুরু করতে দে’রি হচ্ছে বলে জানা গেছে।

 

বর্তমানে বাংলাদেশে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স এবং নভোএয়ার ফ্লাইট পরিচালনা করছে। এছাড়াও রাষ্ট্রীয় পতাকাবা’হী প্রতিষ্ঠান হিসেবে রয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *