পাথর দিয়ে ৫ টন ওজনের বিশ্বকাপের ট্রফি বানালেন কাতারের ব্যবসায়ী

বিশ্বকাপ শুরুর আগেই ফুটবল ভ’ক্তদের জন্য ট্রফি দেখার অভিন’ব এক ব্যবস্থা করে দিয়েছেন কাতারের স্থানীয় বাসিন্দা হামাদ আল সুওয়াইদি। বিশ্বকাপ উপল’ক্ষে পাথরের এক রে’প্লিকা ট্রফি তৈরি করিয়েছেন তিনি।

 

আপাত’ত নিজ বাড়ির উঠানে ট্রফিটি রাখলেও হামাদের ইচ্ছা সবাই যেন এটি দেখার সু’যোগ পায়। বিশ্বকাপের সময় যেন কাতারের দর্শ’নীয় ভে’ন্যুগুলোতে প্রদর্শন করা হয় রে’প্লিকা ট্রফিটি।

 

বিশ্বকাপ ফুটবলের দামা’মা বাজছে বিশ্বজু’ড়ে। কাতারে মরুর বুকে ফুটবলের বিশ্ব আসরের পর্দা ওঠার অপে’ক্ষা আর মাত্র কিছুদিনের। কে হবে এবারের চ্যাম্পিয়ন, কার হাতে উঠবে সোনায় মোড়ানো সোনালি ট্রফি, তা নিয়ে যেন এখন থেকেই জ’ল্পনা-কল্পনা শুরু হয়ে গেছে ফুটবলপ্রে’মীদের মাঝে।

 

ভ’ক্তরা এখন থেকেই নিজ দেশের ফুটবলারদের হাতে ট্রফি আঁ’কাও শুরু করে দিয়েছেন। স্বপ্নের বিশ্বকাপ ট্রফি সামনাসামনি দেখার সৌভা’গ্য হয়তো অনেকের কপালেই জো’টে না। কিন্তু এবার যারা বিশ্বকাপ দেখতে কাতার যাবেন তাদের জন্য ভি’ন্ন এক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন স্থানীয় বাসিন্দা হামাদ আল সুওয়াইদি।

 

সোনালি ট্রফি না হলেও দর্শকদের জন্য পাথরের এক রেপ্লিকা ট্র’ফি তৈরি করেছেন স্থানীয় এই ব্যবসায়ী। রেপ্লি’কা ট্রফির স্ব’ত্বাধিকারী হামাদ আল সুওয়াইদি বলেন, ‘ক’রো’না ম’হামা’রি শুরুর আগেই আমরা বিশ্বকাপের এই রে’প্লিকা ট্রফিটা তৈরি করেছি। এটার পরিপূ’র্ণ রূপ দিতে আমাদের দুই বছর সময় লেগেছে। বিশ্বের সবচেয়ে বড় বিশ্বকাপ রে’প্লিকা ট্রফি এটি।’

 

৫ টন ওজনের পাথরের ট্র’ফিটার উচ্চতা প্রায় তিন মিটার। দেশটির সেরা ভা’স্কর দ্বারা এটি তৈরি করা হয়েছে বলে জানান এর স্ব’ত্বাধিকারী হামাদ। আপাতত নিজ বাড়ির উঠানে পাথরের রে’প্লিকা ট্রফিটি শো’ভা পেলেও হামাদ চান, বিশ্বকাপের সময় কাতারের দর্শনীয় স্থান ও বিশ্বকাপ ভে’ন্যুগুলোতে যেন প্রদর্শন করা হয় ট্রফিটি।

 

হামাদ বলেন, ‘মানুষ যেন বিশ্বকাপের সময় এই রে’প্লিকা বিশ্বকাপ ট্র’ফিটা দেখতে পারে সে জন্য আমি এটা কিনে এনেছি। আমি এটা আমার বাড়িতে রাখতে চাই না। আমি চাই সবাই যেন এটা দেখার সুযোগ পায়। আশা করছি, কাতারের সুন্দর সু’ন্দর ভে’ন্যুগুলোতে এটা প্রদর্শন করা হবে। ২০ নভেম্বর কাতার ও ইকুয়েডরের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে ফুটবলের মহাযজ্ঞ দ্যা গ্রে’টেস্ট শো অন আর্থ।

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *