বিশ্বকাপ ফুটবল শু’রুর আগে সব ধরনের প্রস্তুতি গু’ছিয়ে নিয়েছে আয়োজক দেশ কাতার। বিশ্বের নানা প্রা’ন্ত থেকে আগত দর্শকদের সুযো’গ-সুবিধা নি’শ্চিতে তৈরি করা হয়েছে হায়া কার্ড সার্ভিস সেন্টার।

 

দেশটির আটটি স্টেডিয়াম, বিমানবন্দরে দেখা মিলবে সার্ভিস সেন্টার। সব ধরনের জ’টিলতা দূর করার জন্যই এ উদ্যো’গ নেয়া হয়েছে বলে জানান এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর সাদ আল কুয়ারি।

 

মরুভূমিতে ঘেরা কাতারে এখন রোমাঞ্চের ছ’ড়াছ’ড়ি। বিশ্বের নানা প্রা’ন্তের প্রায় ১২ লাখ অতিথিকে স্বাগত জা’নাতে তোড়জো’ড় চলছে মরু উপত্যকায়। সাজিয়ে তোলা হ’চ্ছে র’ঙিন আলোয়। এতসব আয়োজন ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ ফুটবল বিশ্বকাপকে ঘিরে।

 

বিশ্বকাপে আগত দর্শকদের কাতারে প্রবেশের জন্য সবচেয়ে গুরুত্ব’পূর্ণ হলো হায়া কার্ড। যে কার্ডের মাধ্যমে একজন দর্শক তার প্রবেশা’ধিকার নিশ্চিত করতে পারবেন। এটির মাধ্যমে নানা ধরনের সুবি’ধাও গ্রহণ করতে পারবেন তারা।

 

বিভিন্ন রুটে মেট্রো সার্ভিস, শাটল সার্ভিস, স্টেডিয়ামে প্রবেশ, বিভিন্ন অ্যাপ চালানোসহ সব ক্ষে’ত্রেই প্রয়োজন হবে এ কার্ড। কাতারের ওয়েস্ট বে-এর কেন্দ্রবি’ন্দুতে তৈরি করা হয়েছে হায়া কার্ড সার্ভিস সেন্টার। এখানে কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে কীভাবে সুযোগ-সুবিধা পাবেন, এমনকি সঠি’কভাবে কার্ড ব্যবহার করতে না পারাসহ সব ধরনের সেবা দেয়া হবে দর্শকদের।

 

ইতোমধ্যে, কাতারে আগত টি’কিট বু’কিং দেয়া ৭৫ শতাংশের হায়া কার্ড নিশ্চিত করেছে দেশটি। এ ছাড়া দেশটির বিমানবন্দরেও কাস্টমার সার্ভিসের ব্যবস্থা রেখেছে আয়োজক কমিটি। হায়া কার্ড সেন্টার ছাড়াও, আহমদ বিন হামাদ আল আত্যিয়াহ অ্যারেনা ও স্টেডিয়ামগুলোতে সেবা পাবেন দর্শ’করা।

 

হায়ার এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর সাদ আল কুয়ারি বলেন, ‘এখন পর্যন্ত আমরা ৭৫ শতাংশ দর্শকের হায়া কার্ড নিশ্চিত ক’রতে পেরেছি। প্রতিদিন এ সং’খ্যা বেড়েই চলেছে। যার মাধ্যমে দর্শকরা তাদের সুযোগ-সুবিধাগুলো ব্যবহার করতে পারবেন। এদিকে হায়ার ভেন্যু ম্যানেজার সাদ আল সুওইয়াইদি বলেন, ‘হায়া কার্ড মূলত কাতারে প্রবেশের অনুমতিপত্র।

 

কাতার এবং কাতারের বাইরের দর্শ’কদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিতে ও কার্ড সম্পর্কিত জটি’লতা দূ’র করতে এ সেন্টারসমূহ স্থাপন করা হয়েছে। যাতে দর্শকরা যে কোনো ধরনের সুবিধা স্বাছ’ন্দ্যে ভো’গ করতে পারেন।

 

তাই, বিমানবন্দর থেকে শুরু করে স্টেডিয়াম ও বিভিন্ন স্থানে সার্ভিস সেন্টারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। নভে’ম্বরে কাতারে আগত দর্শকদের সুবিধা’র্থে বিভিন্ন ধরনের অ্যা’প চালু করেছে আয়োজক দেশটি। যার মাধ্যমে তারা যেকোনো ধরনের সম’স্যা সমাধানে সহযোগিতা পেয়ে থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *