ফুটবল বিশ্বকাপ উপলক্ষে চীন থেকে কাতারকে ‘সুহেল’ ও ‘সোরায়া’ নামের দুই পান্ডাকে বিদায় জানাতে চায়না কনজারভেশন অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টার ফর দ্য জায়ান্ট পান্ডা বাইফেংজিয়া বেস-এ একটি বিদায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।

 

দৈত্যাকার পান্ডাগুলি আগামীকাল ১৮ অক্টোবর কাতারে পৌঁছবে বলে আশা করা হচ্ছে। কাতারে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত, এইচই ঝো জিয়ানও টুইটারে লিখেছেন, “আগামীকাল কাতারে দেখা হবে!

 

চীনা নিউজ পোর্টাল ওয়েনওয়েইপোর মতে এই প্রথম কোনো পান্ডাকে নতুন জীবন যাপনের জন্য মধ্যপ্রাচ্যে পাঠানো হয়েছে।  পান্ডা ‘সুহেল’ এর চীনা নাম ‘জিং জিং’ বিশাল আকৃতির। সুহেল গাছে উঠতেও পছন্দ করেন।

 

পান্ডা ‘সোরায়া’ এর চাইনিজ নাম ‘সি হাই’। এটি মেয়ে পান্ডা। এই বিশাল সাইজের পান্ডাটি ২০১৮ সালে চীনের এক পান্ডা সেন্টারে জন্ম নেয়। পরে এটি ইয়ান বেসে বসবাস করে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভেন্যুগুলি মূল্যায়ন করার জন্য চীনের বিশেষজ্ঞদের একটি দলকে কাতারে পাঠানো হয়েছিল।

 

পান্ডা দুইটি চীনা জনগণের তরফ থেকে কাতার বিশ্বকাপের জন্য উপহার। এটি অবশ্যই চীন-কাতার বন্ধুত্বের একটি নতুন প্রতীক হয়ে উঠবে। কাতারের চীনা দূতাবাসের একজন কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন, পান্ডাদের আল খোর পার্কে থাকার জায়গা স্থাপন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *