প্রথমবারের মত বিশ্বকাপ আয়োজনকে ঘি’রে এখন ব্যস্ত সময় কা’টাচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতার। সঙ্গে বেড়ে গেছে বিশ্ব ফুটবলের নি’য়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার ব্য’স্ততাও। চার বছর পরপর বিশ্ব ক্রী’ড়াঙ্গ’নের সবচেয়ে বড় এই প্রতিযোগিতাকে নিয়ে সারা বিশ্ব যেমন মে’তে ওঠে, ঠিক তেমনি আয়োজক দেশের সামনে চ্যা’লেঞ্জ থাকে কিভাবে নিজেদের সবার থেকে এ’গিয়ে নেওয়া যায়।

 

কাতারও তার ব্য’তিক্রম নয়। তেল সমৃ’দ্ধ বিশ্বের অন্যতম ধনী এই দেশটি বিশ্বকাপ আয়োজনের স্ব’ত্ব পাওয়ার পর থেকেই নিজেদের পরিক’ল্পনা বাস্তবায়নে কাজ শুরু করে দিয়েছিলো। এখন অপে’ক্ষা সারা বিশ্বের সামনে নিজেদের পরি’শ্রমকে সফল প্রমাণ করার।

 

ইতোমধ্যেই বিশ্বকাপের জন্য প্রায় ৩ মিলিয়ন টিকিট বি’ক্রি হয়ে গেছে। আগামী ২০ নভেম্বর আল বায়াত স্টেডিয়ামে ইকুয়েডর বনাম স্বাগতিক কাতারের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে প’র্দা উঠবে মধ্যপ্রাচ্য বিশ্বকাপের। ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফ্যা’ন্তিনো বলেছেন, ‘আমরা সবসময় বলেছি কাতার এ যাবতকা’লের সেরা বিশ্বকাপ উপহার দিবে।

 

এই মুহূ’র্তে দেশটির দিকে তাকালেই তার প্রমা’ণ পাওয়া পাওয়া যায়। স্টেডিয়ামগুলোকে ঘিরে নির্মানয’জ্ঞ, অনুশীলন মাঠ, মেট্রো, অবকাঠামো- সব মিলিয়ে সবাইকে স্বা’গত জানাতে কাতার পুরোপুরি প্র’স্তুত। পুরো বিশ্ব এখন মাঠের ল’ড়াইয়ের অপে’ক্ষায়। কাতার প্রস্তুত, বিশ্বকাপের মঞ্চ প্রস্তুত, ফিফাও প্রস্তুত।

 

সবাই মিলে আমরা এখন সেরা একটি বিশ্বকাপ সকলকে উপহার দেওয়ার দ্বা’রপ্রা’ন্তে রয়েছি।’ দোহায় অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে আয়োজকরা জানিয়েছেন ৮টি স্টেডিয়ামে আয়োজিত ৬৪টি ম্যাচের জন্য ২.৮৯ মিলিয়ন টিকিট বি’ক্রি হয়ে গেছে।

 

ফুটবল পা’গল জাতি হিসেবে পরিচিত ইংল্যান্ড, মেক্সিকো, যুক্তরাষ্ট্র, সংযুক্ত আরব আমিরাত, আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, ফ্রান্স, জার্মানি ও স্বাগতিক কাতারের ম্যাচগুলোর জন্যই টিকিটের চা’হিদা সবচেয়ে বেশি।

 

আয়োজকরা আরো জানিয়েছেন বিদে’শি সম’র্থকদের কাতারে প্রবেশের জন্য হায়া কার্ড অনুমতি হিসেবে কার্যকরী হবে। এই কার্ডের মাধ্যমে গণপরিবহনে বিনা টিকিটে ভ্র’মন ও স্টেডিয়ামে ম্যাচ টিকিটের পাশাপাশি প্রবেশের জন্য কা’র্যকর হিসেবে গণ্য হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *