বাবা-মায়ের স্বপ্ন পূরণ করতে হেলিকপ্টারে বাড়িতে বউ আনলেন দাদন

বাবা-মায়ের স্বপ্ন ছিল ছেলে হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করবেন। সেই স্বপ্নকে বা’স্তবে রূপ দিলেন ছেলে দাদন তালুকদার। তিনি পেশায় ব্যাং’ক কর্মকর্তা। শুক্রবার (২৮ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হেলিকপ্টারে চ’রে কনের বাড়িতে যান দাদন তালুকদার। তবে বাকি বরযা’ত্রীরা যান গাড়িতে চড়ে।

 

দাদন তালুকদার মাদারীপুর সদর উপজেলার দুধখালী ইউনিয়নের উত্তর দুধখালী গ্রামের ইদ্রিস আলী তালুকদারের আ’ট সন্তানের মধ্যে প’ঞ্চম ছেলে। দাদন তালুকদার অগ্রণী ব্যাংক লিমি’টেডে রাজধানীর ধানমন্ডির গ্রিনরোড শাখায় অফিসা’র পদে কর্মরর্ত আছেন।

 

কনে রুমানা শবনম মিরপুর সরকারি বাংলা কলেজে রসায়ন বিভাগের প্রভাষক। ইদ্রিস আলী তালুকদারের আট সন্তা’নের মধ্যে দাদন ভাইদের মধ্যে ছোট। ছোটবেলা থেকেই বাবা-মা তাকে খুব আ’দর করেন। দাদন যখন ছোট ছিল, তখনই বাবা-মায়ের স্বপ্ন ছিল ছেলেকে হেলিকপ্টারে ক’রে বিয়ে করাবেন।

 

বাবার সেই স্বপ্ন পূরণ করতেই হেলি’কপ্টারে চ’ড়ে বাবাকে সঙ্গে নিয়ে পাড়ি জমান ঢাকার মিরপুর-১০ নম্বর এলাকায়। কনে মিরপুর-১০ এলাকার বাবর আল মাসুদের মেয়ে রুমানা শবনম। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শে’ষে দাদন নববধূ নিয়ে বাড়ি ফেরেন দুপুর ১টার দিকে।

 

এ সময় হাজারো উ’ৎসুক জনতা হে’লিকপ্টার দেখতে ভি’ড় জমায়। স্থানীয় বৃদ্ধ মোকলেছুর রহমান বলেন, ‘আমি কোনো দিন হেলিকপ্টার দেহি নাই। আইজ প্রথম দেখলাম। দেখে আমার অনেক ভালো লাগতে’ছে।’ বরের মেজো ভাই শাহীন বলেন, আমার ছোট ভাই বাবা-মায়ের স্বপ্ন পূ’রণ করার জন্য হেলিকপ্টারে বউ নিয়ে এসেছে।

 

আমাদের স’ম্মিলিত চেষ্টায় আজ আমার ছোট ভাই বাবা-মায়ের স্ব’প্নটা পূরণ করেছে। এতে আমরা অনেক আ’নন্দিত। কনে রুমানা শবনম বলেন, আমার স্বামী আজ তার বাবা-মায়ের স্বপ্ন পূর’ণ করেছেন। এতে আমি অনেক আনন্দিত। এলাকার লোক আমাদের যে আনন্দ দিয়েছেন, এ জন্য আমি তাদের প্রতি চিরকৃতজ্ঞ।

 

এ ব্যাপারে বর দাদন তালুকদার বলেন, আমরা আট ভাই-বোন। আমি ভাই-বোনের মধ্যে পঞ্চম। আমার বাবা-মা আমাকে অনেক আদর করে বড় করেছেন। তারা চাইতেন আমি হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করি। বাবা-মায়ের স্বপ্ন পূরণের জন্য আমি হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করেছি।

 

এক ঘণ্টার জন্য এক লাখ টাকায় হেলিকপ্টারটি ভা’ড়া করে এনেছিলাম। বরের বাবা ইদ্রিস তালুকদার বলেন, আমার ছোট ছেলেকে নিয়ে আমাদের অ’নেক স্বপ্ন ছিল। তাকে হেলিকপ্টারে করে বিয়ে করে বউ নিয়ে আসবে। আজ আমি অনেক আনন্দিত। মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে শু’করিয়া জ্ঞা’পন করি, আলহামদুলিল্লাহ।

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *