দরজায় ক’ড়া নাড়ছে কাতার বিশ্বকাপ। আর মাত্র ১৩ দিন পরই প’র্দা উঠবে দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থের। এবারের আসরের হ’ট ফেভারিট দল ব্রাজিল। হে’ক্সা জয়ের মিশনেই কাতার যাবে তারা।

 

অবশ্য ২০১৪ সালে ঘরের মাঠেও ষ’ষ্ঠ বিশ্বকাপ জয়ের বড় স্বপ্ন নিয়ে মাঠে নেমেছিল সেলেসাওরা। কিস্তু স্বাগতিকদের সেই স্বপ্ন ধূ’লিসা’ৎ হয়ে যায় সেমিফাইনালেই। সেবার ফাইনালে ওঠার ম্যাচে জার্মানির কাছে গুণে গুণে ৭ গোল খা’য় ব্রাজিল।

 

যা ফুটবল সমর্থকদের কাছে ‌‘সেভেন আ’প’ নামে পরিচিত। ‘সেভেন আপ’ নিয়ে গত কয়েক বছর ধরেই ট্র’লের শি’কার হচ্ছে ব্রাজিলিয়ানরা। বিশ্বকাপ এলেই এই কথার চ’র্চা বেড়ে যায়।

 

আর ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার জুনিয়র জানান তিনিও এখন প’র্যন্ত ভু’লতে পারেননি জার্মানির দেয়া সেই ক্ষ’ত। নেইমার এক সাক্ষাৎ’কারে বলেছেন , ‌‘আমি বলব না সেটা (ঘরের মাঠে জার্মানির বিপ’ক্ষে ৭-১ গোলে হার) আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বা’জে মুহূর্ত।

 

তবে এটি অবশ্যই সবচেয়ে ক’ঠিন মুহূর্তগুলোর মধ্যে একটি ছিল। আমার প্রথম বিশ্বকাপ, আমার নিজের দেশে, তাই আমি খুব জিততে চেয়েছিলাম। ব্রাজিল সবশেষ ২০০২ সালে বিশ্বকাপ শিরোপা জেতে যা তাদের পঞ্চম শিরোপা এবং ফুটবলের সর্বো’চ্চ বিশ্বকাপের রেক’র্ড।

 

কাতারে শিরোপা জয় করেই ব্রাজিল কাটাবে তাদের ২০ বছরের খরা। নেইমার বলেন, ‌‘ছোটবেলা থেকেই বিশ্বকাপ জেতা আমার স্ব’প্ন ছিল। সেই লক্ষ্যে কাতারে আমি আরেকটি সুযো’গ পেয়েছি। স্বপ্ন দেখি, আমি আরাধ্য সেই ট্র’ফিটি ধরে আছি। আশা করি, শেষ হাসি আমিই হাসব।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *