২০১০ সালে বিশ্বকাপ আয়োজনের দা’য়িত্ব পায় কাতার। কিন্তু ২০২২ সালে এসেও এই টুর্নামেন্ট দে’শটিতে আয়োজন করা নিয়ে বিত’র্ক থামেনি। স্টেডিয়াম নির্মাণে শ্রমিকদের মৃ’ত্যু ও কাতারের র’ক্ষণশীল নিয়মের কারণে স’মালো’চনায় মেতেছেন ইউরো’পের ফুটবল সংশ্লিষ্টরা।

 

এবার ফিফার সাবেক সভাপতি সেফ ব্লা’টার বলেছেন, কাতারকে বিশ্বকাপের স্বাগতিক করা ভু’ল ছিল। ২০১০ সালে কাতারকে স্বাগতিক ঘোষণা করার সময় ফিফার সভাপতি ছিলেন তিনি।

 

তার আম’লের কার্যনির্বাহী কমিটির সভার ভো’টাভু’টিতে স্বাগতিক নির্ধারিত হয়। ব্লাটারের দা’বি, কাতারের প’ক্ষে ভোট দেননি তিনি। সুইস পত্রিকা টেগাস আনজিগেরকে দেওয়া সা’ক্ষাৎকারে ব্লাটার বলেছেন, ‘ওই সময় আমরা এই ব্যাপারে সম্ম’তিতে পৌঁছেছিলাম রাশিয়ায় ২০১৮ ও যুক্তরাষ্ট্রে ২০২২ বিশ্বকাপ আয়োজন করা হবে।

 

এটা শা’ন্তির প্রতি ই’ঙ্গিত হতো দুই রাজনৈ’তিক প্র’তিদ্ব’ন্দ্বীকে পরপর বিশ্বকাপ আয়োজন করতে দেওয়া। কাতার খুব ছোট দেশ। ফুটবল ও বিশ্বকাপ তাদের জন্য অনেক বড় হয়ে যায়। ’

 

আর মাত্র সপ্তাহ দুয়েক পরই শুরু হতে যাচ্ছে কাতার বিশ্বকাপ। সাধারণত এই টুর্নামেন্ট হয়ে থাকে জুন-জু’লাই মাসে। কিন্তু কাতারের গ’রমের কারণে এবার সেটি বদলে হচ্ছে নভেম্বর-ডিসেম্বরে। এই বিশ্বকাপ কাতারে আয়োজনের দায় অবশ্য এ’ড়িয়ে যাননি ব্লাটার।

 

তিনি বলেছেন, ‘এখন বিশ্বকাপ আ’সন্ন। আমি খুশি যে কিছু প্র’ত্যাশা থাকলেও কোন ফুটবলারই বিশ্বকাপ ‘ব’য়ক’ট করছে না। আমার কাছে এটা পরিষ্কার- কাতারকে স্বাগতিক করা ভু’ল ছিল। পছন্দটা খারা’প ছিল।

 

আমি আসলে ভাবছি ফিফা সভাপতি (জিয়ান্নি ইনফান্তিনো) কেন কাতারে থাকছে?’ ‘সে তো বিশ্বকাপ আয়োজক ক’মিটির প্রধান না। এটা তার কাজও না। এখানে দুই’টা কমিটি আছে। একটা স্থানীয়দের আরেকটা ফিফার। ’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *