কাতারে আর মাত্র তিন মাসেরও কম সময় পর অনুষ্ঠিত হবে ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ। ফুটবল বিশ্বের এই সবচেয়ে বড় আসর দেখতে বিভিন্ন দেশ থেকে আসবেন লাখ লাখ দর্শক।

কাতারজু’ড়ে তাই চলছে নানারকম বাণিজ্যিক প্রস্তুতি। পিছিয়ে নেই বিভিন্ন বাড়িঘরের কাতারি মালিকেরা। কাতারে আগত বিদেশি দর্শকদের থাকার জন্য নিজেদের ঘর ভাড়া দেওয়ার সুযোগ চালু হয়েছে আরও আগে। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে ইচ্ছেমতো ভাড়া হাঁ’কছেন অনেকে।

পার্ল এলাকায় বিশ্বকাপ চলাকালে এক মাসের জন্য একটি ভিলার ভাড়া দা’বি করা হয়েছে প্রায় ৫ মিলিয়ন রিয়াল। এতে থাকতে পারবেন সর্বোচ্চ ১২ জন। আর একই এলাকায় ২ বেডরুমের একটি অ্যাপার্টমেন্টের সবচেয়ে কম ভাড়া ৩ লাখ ৭৮ হাজার কাতারি রিয়াল।

বুকিং ডটক’মে দেখা গেছে, কাতারে বিশ্বকাপ চলাকালে এক মাসের জন্য নিজের ভিলা ভাড়া দিতে আগ্রহী এক মালিক ভাড়া দাবি করেছেন ৪ মিলিয়ন রিয়াল, অর্থাৎ প্রায় ৪০ লাখ রিয়াল।

এক হাজার বর্গমিটারের এই বাড়িতে রয়েছে ৬টি বেডরুম এবং ৯টি টয়লেট। এছাড়া আরও আছে গেমিং রুম, হোম থি’য়েটার, সুইমিং পুল। এমন একটি বাসার ভাড়া এত উচ্চমূল্যের দেখে অবা’ক হচ্ছেন অনেকে।

এছাড়া আরও দেখা গেছে, ৫০০ বর্গমিটার আয়তনের বাড়িতে ২টি বেডরুম এবং ৪টি বাথরুমের ভাড়া ৪ লাখ ৬৪ হাজার রিয়াল। ৭৫ বর্গমিটার আয়তনের একটি স্টু’ডিও রুমের ভাড়া চাওয়া হয়েছে ৩ লাখ ৫২ হাজার ২৯৬ রিয়াল। যদিও কাতারে বিশ্বকাপ চলাকালে নানারকম আবাসন সুবিধা পাবেন অতিথি দর্শকরা।

এর মধ্যে হোটেল ও ভিলার পাশাপাশি কেবিন, তাঁবু এবং বন্ধুবান্ধব বা পরিবারের সদস্যদের বাড়িতেও থাকতে পারবেন আগ্রহীরা। তবে এত চড়া মূল্যের ভাড়া কাতারে বাণিজ্যিক দৃষ্টিকো’ণ থেকেও প্রশংসীয় নয় বলে মন্ত’ব্য করেছেন অনেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.