কাতারে খেলা শেষ হওয়ার পরও যায়নি জাপানি নাগরিকেরা, মন জয় করলো বিশ্ববাসীর

জার্মানিকে ২-১ গোলে হারিয়ে দেশকে আনন্দ-উ’ল্লাসে ভা’সিয়েছেন জাপানি ফুটবলাররা। আর মাঠের বাইরে সামা’জিক কর্মকা’ণ্ডে বি’শ্ববাসীর মন জয় করছেন জাপানি নাগরিকেরা। মাঠে দেশের অবি’শ্বাস্য জয় দেখার পর স্টেডিয়ামে ময়লা পরিচ্ছ’ন্ন করছেন জাপানিরা। তাঁদের এমন কর্মকা’ণ্ডের ছবি মুহূ’র্তের মধ্যে ভাই’রাল হয় সামাজিক মাধ্যমে।

 

আজ খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ম্যাচ শেষ হওয়ার পর ময়’লা পরিষ্কার করেছেন কয়েক জন জাপানি নাগরিক। প’লিথিন, পানির বোতল, চিপসের প্যা’কেট পরি’চ্ছন্নের সময় পাওয়া গেছে জার্মানিদের পতাকাও। জা’পানের কাছে ২-১ গোলে হেরে হতা’শ সমর্থ’কেরা ফেলে গেছেন পতাকা। গত পর’শুও বিশ্বকাপের উদ্বোধ’নী ম্যাচে স্টেডিয়াম পরি’ষ্কার করেছেন তাঁরা।

 

কাতার বনাম ইকুয়েডরের ম্যাচটিতে সাধারণ দর্শক হিসেবে আল বাইত স্টেডিয়ামে খেলা উপভো’গ করতে এসেছিলেন একদ’ল জাপানি দর্শক। কাতার কিংবা ইকুয়েডর—কোনো দলেরই সম’র্থক নন এই জাপানিরা, তবু সেই ম্যা’চের পর আলো’চনায় তাঁরা। উদ্বোধ’নী ম্যাচের পর অন্য সব দর্শ’ক চলে গেলেও থেকে গিয়েছিলেন গু’টিকয়েক কয়েক জাপানি দর্শক।

 

ম্যাচজুড়ে স্টেডিয়ামে অন্য দর্শকদের ফেলে যাওয়া পলি’থিন, পানির বোতল, চিপসের প্যাকেট কু’ড়িয়েছেন সেই জাপানিরা। শুধু কয়েকজন মিলেই মো’টামুটি পরিষ্কার করেছেন স্টেডিয়ামের গ্যালারি। জাপানিদের কু’ড়িয়ে পাওয়া ময়লার মধ্যে ছিল কাতারের পতা’কাও!

 

জাপানিদের এই স্টেডিয়াম পরিষ্কা’রের দৃ’শ্য ভি’ডিওতে তুলে ধরেন ওমর আল-ফারুক নামের এক বাহরাইনের কনটে’ন্ট ক্রিয়েটর। নিজের ইনস্টাগ্রামে সেই ভি’ডিও পোস্ট করার পর অন্তত সাড়ে ৬ লাখ মানুষ সেই ভি’ডিওতে লাইক দিয়েছেন। আল-ফারুকের সেই ভি’ডিওতে এক জাপানি দর্শককে বলতে দেখা গেছে, ‘আমরা জাপানিরা নিজেদের আব’র্জনা নিজেরাই পরিষ্কার করি।

 

আমাদের নিজেদের দেশ ও খেলার মাঠ আমাদেরই পরি’ষ্কার করতে হবে। চলুন পরিচ্ছন্ন’তাকর্মীদের কাজটা সহজ করি।’ দ্বিতীয় আরেক ব্য’ক্তিকে বলতে দেখা গেছে, ‘জাপানিরা এমনভাবে পরি’ষ্কার করছেন, যেন এটা তাঁদেরই দেশ।

 

তাঁরা যেন বো’ঝাতে চেয়েছেন, নিজের দেশে ময়’লা ফেলবেন না। ফেললেও সেটা পরি’ষ্কার করে ফেলুন। জাপানিদের পরি’চ্ছন্নতার অভ্যাস এমন নতুন কিছু নয়। ২০১৮ রা’শিয়া বিশ্বকাপেও স্টেডিয়ামের আবর্জনা পরি’ষ্কার করে বেশ প্রশংসিত হয়েছিলেন জাপানি দর্শকেরা।

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *