কাতারের লুসাইলে ফ্যান ভিলেজের কাছে আগুন, কালো ধোঁয়ায় ঢেকে গেছে আকাশ

কাতারের বিশ্বকাপের শহর লুসাইলে ফুটবল ভ’ক্তদের জন্য নির্মিত একটি গ্রামের কাছে ভ’য়াব’হ অ’গ্নিকা’ণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। রাজধানী দোহার উত্তরের এই শহরের ফ্যান ভি’লেজের কাছে ধোঁ’য়ার বিশাল কু’ণ্ডলী আ’কাশে উড়তে দেখা গেছে। ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইল বলেছে, লুসাইলের কেতাইফান দ্বী’পের উত্তরে ফ্যান ভিলেজের আকাশ কা’লো ধোঁ’য়ায় ঢেকে গেছে।

 

তবে কোথায় থেকে আ’গুনের উৎপ’ত্তি হয়েছে সেটি এখনও পরি’ষ্কার নয়। দেশটির কর্মকর্তারা বলেছেন, লুসাইল শহরের একটি নির্মাণাধীন ভবনে আ’গুন ছ’ড়িয়ে পড়েছে। শনিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টার দিকে কর্তৃপ’ক্ষের এক টুইট বা’র্তায় ফুটবল বিশ্বকাপ দেখতে যাওয়া দর্শক ও সেখানকার বাসি’ন্দাদের অ’গ্নিকা’ণ্ডের এই ঘটনায় আ’তঙ্কি’ত না হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।

 

সামাজিক যোগা’যোগমাধ্যমে আসা বেশ কিছু ভি’ডিওতে লুসা’ইলের ফুটবল ভিলেজের কাছের ওই আ’গুন কয়েক মাইল দূরে থেকেও দে’খা যাচ্ছে। ছবিতে দেখা যায়, কাতারের পূর্ব উপকূলে রাজধানী দোহার উত্তরের লুসাইল শহরে ক্যানভা’সের তাঁবু দিয়ে গ্রামটি তৈরি করা হয়েছে।

 

গত সপ্তাহে বিশ্বকাপ শুরুর অনেক আগেই ক’য়েক বিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্য’য় করে ফুটবল ভ’ক্তদের জন্য কিছু স্থাপনা নির্মাণ করেছে কাতার সরকার। দেশটির কর্তৃপ’ক্ষ বলেছে, লুসাইলের বেসামরিক প্রতির’ক্ষা দ’প্তর ইতোমধ্যে নির্মাণাধীন ওই ভবনের আ’গুন নিয়ন্ত্র’ণে এনেছে। তবে অ’গ্নিকা’ণ্ডের এই ঘটনায় কোনও হ’তাহ’ত হয়নি।

 

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই ঘটনার নাট’কীয় এক ভি’ডিওতে দেখা যায়, ফ্যান ভিলেজের কাছের একটি ভবনের ছা’দ আ’গুনে পু’ড়ছে। তবে নির্মাণাধীন ভবনে কী কারণে অ’গ্নিকা’ণ্ড ঘটেছে তাৎক্ষ’ণিকভাবে তা পরি’ষ্কার হওয়া যায়নি। বিশ্বকাপ আয়োজনের প্রস্তুতি হিসেবে ১৮৫ বিলিয়ন পাউ’ন্ড ব্যয় করে বিভিন্ন ধরনের অবকাঠা’মো নির্মাণ করেছে কাতার।

 

এই অর্থের বেশিরভাগই গেছে লুসাইলে, যেখানে একেবারে নতুন একটি স্টে’ডিয়ামও তৈরি করেছে দেশটির সরকার। কাতারের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর লু’সাইল। আল দায়েন পৌরসভার দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত এই শহরে ২ লাখের বেশি শ্রমিক কর্ম’রত আছেন।সূত্র: ডেইলি মেইল, দ্য সান।

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *