বিদেশ থেকে উপার্জনের সব টাকা পাঠিয়েছেন স্ত্রীকে, দেশে এসে দেখেন পালিয়েছে বউ

সৌদি প্রবাসী পলাশ হোসেন। তিনি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার নওদাপাড়া গ্রামের মতিয়ার রহমান মন্ডলের ছেলে। অ’ভাব ঘু’চাতে প্রায় ৫ বছর আগে পাড়ি জমান সৌদি আরবে। স্বপ্ন ছিল পরিবারের সবার মুখে হাসি ফু’টিয়ে ভালোভাবে জীবনযাপন করতে। কিন্তু সেই স্বপ্ন ভ’ঙ্গ করলেন তার স্ত্রী।

জানা গেছে, ২০১৫ সালে কোটচাঁদপুর উপজেলার আজমপুর গ্রামের মুকুল মন্ডলের মেয়ে শাকিলা আক্তারের স’ঙ্গে বিয়ে হয় তার। সৌদিতে কাজ করে যা আয় করেছেন দিয়েছেন স্ত্রীর হাতে। সম্প্রতি তিনি দেশে ফিরে আসেন। এরপর গত শুক্রবার রাতে নগদ ৫ লাখ টাকা ও ৮ ভরি স্বর্ণ নিয়ে পা’লিয়ে গেছে তার স্ত্রী।

কোথাও খুঁ’জে পাচ্ছেন না তাকে। এ ঘটনায় তিনি কালীগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডা’য়েরি করেছেন। নিজের সহায় স’ম্বল হা’রিয়ে পা’গলের মতো ছোটাছুটি করছেন। ক’ষ্ট করে উপার্জন করা স’ম্বল হা’রিয়ে তিনি কা’ন্নায় ভে’ঙে পড়ছেন। ক’ষ্টের টাকা ফিরে পেতে তিনি মানুষের দ্বা’রে দ্বারে ঘুরছেন।

সোমবার সকালে পলাশ হোসেন জানান, অ’ভাবের সংসারে একটু স’চ্ছলতা আনতে ধা’রদে’না করে তিনি বিদেশ গিয়েছিলেন। দেশে আসার পর তিনি ডলার ভা’ঙিয়ে ৪ লাখ টাকা বাড়িতে আনেন। এছাড়া গরু বিক্রির ১ লাখ ২০ হাজার টাকা নিজের কাছে রেখেছিলেন।

বিদেশ থেকে আনা ৮ ভরি স্বর্ণসহ মোট ৫ লাখ ২০ হাজার টাকা নিয়ে পা’লিয়ে গেছে তার স্ত্রী শাকিলা আক্তার। কীভাবে তিনি এখন দিন পার করবেন সেই চি’ন্তায় পড়েছেন। পলাশ হোসেনের বাবা মতিয়ার মন্ডল জানান, ধা’রদে’না করে ছেলেকে বিদেশে পাঠিয়েছিলেন।

হঠাৎ গত শুক্রবার রাতে ছেলের বউ টাকা ও স্বর্ণ নিয়ে পা’লিয়ে গেছে। তাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। কালীগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রহিম মোল্লা জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি সাধা’রণ ডায়েরি করেছেন পলাশ হোসেন। তার স্ত্রীকে উ’দ্ধারে কাজ চলছে।

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *