কাতারের ৯৭৪ স্টেডিয়ামের শেষ ম্যাচটি ভাসলো গোল বন্যায়, ব্রাজিলের সামনে কঠিন প্রতিপক্ষ

বিশ্বসেরা আ’ক্র’মণভাগের দুর্দান্ত প্রদর্শনীতে স্টেডিয়াম নাইন সেভেন ফোর ভাসল গোল বন্যায়। পর্তুগালকে হা’রিয়ে বিশ্বকে চমকে দেয়া দক্ষিণ কোরিয়াকে নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলায় মাত’ল ব্রাজিল। সন ইয়ং-মিনদের বিপ’ক্ষে ৪-১ গোলের দুর্দা’ন্ত জয়ে কোয়ার্টার ফাই’নাল নিশ্চিত করল নেইমার-রিচা’র্লিসনরা।

 

দক্ষিণ কোরিয়াকে ৪-১ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ব্রাজিল এবং বিদায় করে দিয়েছে এশিয়ার শেষ প্রতিনিধি জাপানও। নির্ধারিত সূচি অনুযায়ীই কোয়ার্টার ফাইনালে ক্রোয়েশিয়ার মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। ম্যাচের শেষ বাঁ’শি বাজতে ৯০ মিনিটের অপেক্ষা হলেও ব্রাজিলের শেষ আট নি’শ্চিত হয়ে গিয়েছিল মূলত প্রথমার্ধের ৩৫ মিনিটেই। ই’নজু’রি কা’টিয়ে ফেরা নেইমারকে পেয়েই যেন চেনা ছন্দের ব্রাজিলকে দেখল ফুটবল বিশ্ব। ম্যাচ শুরুর বাঁ’শি বাজতেই ভিনিসিউস-রাফিনিয়া-রিশার্লিসনরা মেতে উঠলেন ভ’য়’ঙ্কর-সুন্দর ফুটবলে।

 

গোলও মিলতে থাকল একের পর এক। দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে সবশেষ দেখায় গুণে গুণে পাঁচ গোল দিয়েছিল ব্রাজিল। সেই দলটির বিপ’ক্ষে বিশ্বকাপের মঞ্চে মুখোমু’খি হতেই গেল জুনের ম্যাচটা যেখানে শেষ করেছিল ব্রাজিল, আজ যেন শুরু করল সেখান থেকেই।

 

যদিও প্রথমার্ধের চার গো’লের পর ব্যবধা’ন আর বাড়াতে পারেনি ব্রাজিল। অন্যদিকে গোল শো’ধে ম’রিয়া দক্ষিণ কোরিয়া প্রথমার্ধে ছ’ন্নছা’ড়া থাকলে দ্বিতীয়ার্ধে বেশ কয়েকটি আ’ক্রম’ণ শানিয়েছে। বিশ্বসেরা গোলকিপার অ্যালিসন বেকারের দু’র্ভেদ্য দেয়ালও একবার ভা’ঙতে পেরেছে তারা।

 

সোমবার (৫ নভেম্বর) স্টেডিয়াম নাইন সেভেন ফোরে ম‌্যাচের সপ্ত’ম মিনিটে রাফিনিয়ার দুর্দা’ন্ত পাস থেকে ফাঁ’কায় বল পেয়ে সহজেই বল জালে জ’ড়ান ভিনিসিউস। প্রায় সাত মাস পর আন্তর্জাতিক গোলের দেখা পান রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড। শু’রু থেকেই এলোমেলো ফুটবল খেলা সন হিয়ং-মিনদের বিপ’ক্ষে ব্যবধান দ্বিগু’ণ করতে বেশি সময় লাগল না ব্রাজিলের।

 

১১ মিনিটে নিজেদের বিপদসীমায় রি’চার্লিসনকে ফা’উল করে কোরিয়ার রক্ষ’ণভাগের খেলোয়াড়। পেনা’ল্টি যায় ব্রাজিলের পক্ষে। নেইমারের ঠা’ণ্ডা মাথায় নেয়া পেনা’ল্টিটা ঠেকানোর সাধ্যই ছিল না কোরিয়ান গোলর’ক্ষক কিম সিয়াং-গুইয়ের। ব্রাজিল এগিয়ে যায় ২-০ গোলে। ইনজু’রি কা’টিয়ে মাঠে ফিরেই গোল পেলেন নেইমার।

 

গ্রুপপর্বে প্রথম ম্যাচে রিচার্লিসনের দুই গোলে জিতেছিল ব্রাজিল। শেষ ষোলোর ম্যাচে আবারও মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন। কোরিয়ার র’ক্ষণদুর্গ ভে’ঙে তার দারুণ এক গোলে ২৯ মিনিটে ব্রাজিল ৩-০ গোলে এগিয়ে যায়। এক হালি পূ’র্ণ করতে ব্রাজিলের সময় লাগল মাত্র ৩৫ মিনিট। কোরিয়ার জালে চতুর্থ গোল করলেন লুকাস পাকেতা। কাউন্টার অ‌্যা’টাকে দারুণ ফুটবলে কোরিয়ার জালে চতুর্থ গোল করতে একটুও বে’গ পেতে হয়নি। ভিনিসিউসের ক্রস থেকে ডি বক্সের সামান‌্য বাইরে থেকে ডান পায়ে জোড়ালে শটে র’ক্ষণ ভাঙেন পাকেতা।

এই ক্যাটাগরির আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *