কাতার থেকে অ’বৈধ পথে টাকা পাঠানো বেড়ে যাওয়ায় কমে গেছে রেমিট্যান্স প্রবাহ। এ অবস্থায় রেমিট্যান্স বাড়াতে কৌশল প্রণয়ন শীর্ষক এক কর্মশালার আয়োজন করেছে বাংলাদেশ দূতাবাস। ক’রো’না পরিস্থিতি ও বৈশ্বিক প্রেক্ষাপট, রা’শিয়া ইউক্রেন যু’দ্ধসহ নানা কারণে কমে যাচ্ছে প্রবাসীদের রেমিট্যান্স প্রবাহ।

 

তার সঙ্গে যোগ হয়েছে অ’বৈধ হু’ন্ডি বিকাশসহ অন্যান্য উপায়ে রেমিট্যান্স পাঠানো। যার কারণে কমে যাচ্ছে প্রবাসীদের রেমিট্যান্স প্রবাহ। প্রবাসীদের রেমিট্যান্স পাঠানো শীর্ষ দেশের মধ্যেই ৬ষ্ঠ স্থানে থাকা ফুটবল বিশ্বকাপ আয়োজক দেশ কাতার থেকেও কমে গেছে রেমিট্যান্স প্রবাহ।

 

কাতার থেকে রেমিট্যান্স কমে যাওয়ায় হতা’শ কাতার বাংলাদেশ দূতাবাসও। দোহা আল হেলাল বাংলাদেশ দূতাবাসে প্রবাসীদের নিয়ে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কাতার থেকে রেমিট্যান্স প্রবাহ বৃ’দ্ধির কৌশল প্রণয়ন শীর্ষক এ কর্মশালার আয়োজন করে বাংলাদেশ দূতাবাস কাতার। রেমিট্যান্স প্রবাহ বাড়ানোর উপায় নিয়ে আলোচনা করেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

 

অ’বৈধ পথ পরিহার করে বৈধ পথে রে’মিট্যান্স পাঠানোর বিষয়ে জোর দেন প্রবাসীরা। প্রবাসীদের বিভিন্ন সম’স্যার কথাও দূতাবাসের কাছে তুলে ধরেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। একজন প্রবাসী বলেন, কয়েক বছর ধরে পথটা ব’ন্ধ হয়ে গেছে। একজন মানুষ শুধু ১ কোটি টাকা ব’ন্ড রাখতে পারে এবং যাদের পুরোনো বন্ড আছে সেটি নতুন করে আবার চালু হচ্ছে না। আরেক প্রবাসী বলেন, যারা কম টাকা পাঠায় তাদের জন্য সরকারি কোনো ব্যাংকের শাখা এখানে করা গেলে অ’বৈধ উপায়ে টাকা পাঠানো বন্ধ হবে।

 

বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠানোর জন্য বাংলাদেশ কমিউনিটি ও কাতারে প্রবাসী বাংলাদেশিদের আঞ্চলিক সংগঠনের সহযোগিতা চেয়েছেন রাষ্ট্রদূত। কাতারে নিযু’ক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন বলেন, আপনারা সদস্যদের তালিকা করে তাদের টেলিফোন করে, বার্তা পাঠিয়ে তাদের সচে’তন করেন। তারা যেন অবৈধ পথে টাকা না পাঠিয়ে বৈধ পথে টাকা পাঠায়।

 

কাতারের শ্রমবাজার সম্প্রসারণে কাজ করছে বাংলাদেশ দূতাবাস। কাতারের শ্রমবাজার সম্প্র’সারণে ভবিষ্যতে ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। কাতারের ন্যাশনাল ভিশন ২০৩০ ও এশিয়ান গেমস ২০৩০ এর কাজের জন্য বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগ করবে কাতার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.