এক বছর যাবত দেশে নেই, অথচ বিদেশে থেকেই কোনো ধরণের অ’পরা’ধ না করেও মাম’লার আসা’মি হচ্ছেন প্রবাসীরা। সম্প্রতি কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় বিএনপি, পুলিশ ও আওয়ামী লীগের ত্রিমুখী সং’ঘ’র্ষের ঘটনায় স’ন্ত্রা’সবিরো’ধী আই’নে ১৩৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞা’ত দেড় হাজার জনকে আসা’মি করে মা’মলা হয়েছে।

 

মাম’লায় অন্যদের স’ঙ্গে আতিকুর রহমান লিটু (৪৫) ও মো. রাসেল (৩৫) নামে দুই প্রবাসীকে আসা’মি করা হয়েছে। আতিকুর রহমান লিটু ২০২১ সালে ২ আগস্ট ছুটি শেষে সৌদি আরবে ফিরে যান এবং মো. রাসেল দুই মাস ধরে দুবাইয়ে আছেন। সৌদি আরব প্রবাসী আতিকুর রহমান লিটু উপজেলা নারান্দী ইউনিয়নের ছোট আজলদী গ্রামের শাফিউদ্দিন পাঠানের ছেলে।

 

দুবাই প্রবাসী মো. রাসেল উপজেলার চরফরাদী ইউনিয়নের চরতেরটেকিয়া গ্রামের ওয়াহাব মিয়ার ছেলে। ঘটনার দিন আতিকুর রহমান লিটু ও রাসেল প্রবাসে অবস্থানের দা’বির বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে মাম’লার বাদী পাকুন্দিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. শাহ কামাল জানান, আমরা বিভিন্ন ভি’ডিও ফু’টেজ দেখে অনেককে আট’ক করেছি।

 

পরে তাদের কাছ থেকে শুনে অন্যদের নাম লিখেছি। অনেক সময় এমনও হয়, এত এত লোকের ভি’ড়ে এক-দুইজন এদিক-সেদিক হতে পারে। তবে এক্ষে’ত্রে অনি’চ্ছাকৃ’ত কোনো ভু’ল হয়ে থাকলে, তদ’ন্তকারী কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে আই’নানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মাম’লার তদ’ন্ত কর্মকর্তা পাকুন্দিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক নাহিদ হাসান সুমন বলেন, মাম’লার তদ’ন্ত চলছে।

 

আমি তদ’ন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে যদি তাদের সম্পৃ’ক্ততা নাই পাই বা তারা যে প্রবাসে আছে, সেটা যদি প্র’মাণিত হয় তবে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এদিকে, কোন ধরণের অ’পরা’ধ না করেও এভাবে প্রবাসীদের আসা’মি করার তীব্র প্রতি’বাদ জানিয়েছেন প্রবাসীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.