নরসিংদীর রায়পুরায় স্বামীর ঘর ছেড়ে বিয়ের দা’বিতে সামি (১৮) নামের এক প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থা’ন নিয়েছেন এক তরুণী (১৮)। আজ শনিবার সকাল ১০টায় পৌরসভার হাসিমপুর এলাকায় প্রেমিকের বাড়িতে অব’স্থা নেন তিনি। স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত তিন মাস আগে উভয় পরিবারের সম্ম’তিতে একই গ্রামের এক ছেলের স’ঙ্গে বিয়ে ওই তরুণীর।

 

কিন্তু স্থানীয় স্কুলে পড়ার সময় চার বছর আগে সামির স’ঙ্গে প্রেমের সম্প’র্ক গড়ে ওঠে ওই তরুণীর। বিয়ের পরও স্বামীর অ’নুপস্থিতিতে মোবাইলে ওই সামির সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করতেন তিনি। এ নিয়ে কয়েক দফায় গ্রাম্য সালি’সি হয়। গত তিন দিন আগে সালিসি মী’মাংসায় স্বামীর সং’সার করবে না বলে তালা’ক দিয়ে স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়ি চলে আসেন তিনি। এরপর আজ শনিবার সকালে বাবার বাড়ি থেকে ওই প্রেমিকের বাড়িতে অব’স্থান নেন।

 

প্রেমিককে না পেয়ে বিয়ের দা’বিতে অবস্থান করেন। এদিকে প্রেমিকের পরিবার এ ঘটনার পর ঘরে তা’লাব’দ্ধ করে অন্য’ত্র চলে যায়। অন্যদিকে প্রেমিকও উধা’ও। প্রেমিককে না পেয়ে ওই তরুণী রান্না ঘরে অ’নশ’নে বসেন। সন্ধ্যা পর্যন্ত চলে এ অন’শন। এ নিয়ে সকাল থেকে দিনব্যাপী এলাকায় জনসাধারণের মধ্যে চা’ঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এ সময় প্রেমিক সামির বাড়িতে ভি’ড় জমান এলাকাবাসী।

 

প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নেওয়া ওই তরুণী বলেন, ‘সামির সঙ্গে দীর্ঘদি’নের প্রেমের সম্প’র্ক। তাঁকে আমার সামনে এনে হাজির করেন। বিয়ের পরও প্রতিনিয়ত তাঁর সঙ্গে কথা হতো আমার। বিয়ে করবে বলে স্বামীর ঘর ছেড়ে বাড়িতে এসেছি। তাঁকে না পেলে ম’রে যাব, তাঁকেই চাই।’ এ সময় তিনি সামিকে না পেলে আ’ত্মহ’ত্যা’র হুম’কি দেন।

 

এদিকে এ ঘটনার পর থেকে প্রেমিক ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা গা ঢাকা দিয়েছেন। এ বিষয়ে জানতে সামি ও স্বজনদের বক্ত’ব্য পাওয়া যায়নি। এ নিয়ে পৌর কমিশনার নাহিদ মিয়া বলেন, ‘এ ঘটনাটি শুনে খোঁজ খবর নিচ্ছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.