জাজিরা এয়ারওয়েজ, ফ্লাই দুবাই, সালাম এয়ার এবং পেগাসাস এয়ারলাইন্স ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে দোহা বিমানবন্দর থেকে চলাচল করবে। ইতিমধ্যে টিকিট বিক্রি শুরু করছে এয়ারলাইন্সগুলো।

 

যাত্রীদের উদ্দেশ্যে জাজিরা এয়ারওয়েজ একটি বার্তায় জানায়, বিমানবন্দর পরিবর্তনে কাতার বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের নির্দেশাবলী অনুসরণ করে। এই সিদ্ধান্ত ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে।

 

হামাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরটি শুধুমাত্র জুন মাসে ত্রিশ লাখ যাত্রী ব্যবহার করেছে, যা বছরের প্রথম তিন মাসের তুলনায় ১৮ শতাংশ বেশি। হামাদ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টের উপর চাপ কমাতে বিমানবন্দর পরিবর্তনের পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

 

আগামী ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত হামাদ এয়ারপোর্ট থেকে জাজিরা এয়ারওয়েজের কোনো ফ্লাইট চলাচল করবে না। জাজিরা এয়ারওয়েজ কুয়েত থেকে পরিচালিত একটি বেসরকারি এয়ারলাইন্স। এটি দোহা থেকে কুয়েত হয়ে ঢাকা ও চট্টগ্রাম চলাচল করে থাকে।

 

কাতার বিশ্বকাপের আয়োজকরা এই বছরের শুরুতে ঘোষণা করেছিলেন দুবাই, কুয়েত এবং সৌদি আরব থেকে বেশ কয়েকটি উপসাগরীয় এয়ারলাইনস টুর্নামেন্ট চলাকালীন দোহা বিমানবন্দরে ১০০টিরও বেশি শাটল চালাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.