চাল আর ডালের কেজি ১ টাকা, তেলের লিটার ৪ টাকা আর ডিমের ডজন ৩ টাকা! আছে জামাকাপড়ও। শুনে অবা’ক হওয়ারই কথা। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে যখন মানুষের নাভিশ্বা’স উঠছে, তখন সুবিধাবঞ্চিত ও নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে ‘এক টাকায় কেনার আনন্দ’ নামে একটি ব্যতিক্রমী সুপারশপ।

 

বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) সহযোগিতায় এই আয়োজন। চাল, ডাল, ডিম থেকে শুরু করে নানা নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস আছে এই বাজারে। নগরীর বাকলিয়া থানাধীন একটি কনভেনশন সেন্টারে এই সুপারশপের উদ্বোধন করেন নগর পুলিশ কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায়।

 

পাশাপাশি তিনি গাড়ির মধ্যে সাজানো ভ্রাম্য’মাণ একটি বিপণি বিতানও উদ্বোধন করেন। এই গাড়ি বিভিন্ন এলাকায় পণ্য নিয়ে ঘুরে বেড়াবে ১ টাকায় বাজারের ক্রেতা খুঁ’জতে। আয়োজকরা বলছেন, এই বাজার থেকে ১ দিনেই প্রায় ১ হাজার ৫০০ মানুষ বাজার করেছেন। ছিল বাছাই করে কেনাকাটার স্বাধীনতাও।

 

আয়োজনে উপস্থিত সিএমপি কমিশনার বলেন, ‘বিদ্যানন্দের ব্যতিক্রমী কাজ মানুষের কল্যাণে এক দৃ’ষ্টান্ত তৈরি করেছে। ক’রো’নার সময় বিদ্যানন্দের সঙ্গে সিএমপি জনকল্যাণকর কাজ করেছে। ভবিষ্যতেও এর ধারাবাহিকতা অ’টুট থাকবে। বিদ্যানন্দের স’ঙ্গে কাজ করতে পেরে আমরা গর্বিত।’

 

বিদ্যানন্দের আয়োজকরা বলেন, ‘ক’রো’নার ঘা’ত যেতে না যেতেই আরেক যু’দ্ধ শুরু হয়েছে। দ্রব্যমূল্য এখন সাধারণ মানুষের নাগা’লের বাইরে। যার কারণে সারাবিশ্বে এখন নিম্ন আয়ের মানুষজন ক’ষ্টে আছেন।’

 

তারা জানিয়েছেন, ১০ হাজার অতি দ’রিদ্র পরিবারকে নি’ত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য উপহার দেওয়া হবে। আর তারই অং’শ হিসেবে এই ১ টাকায় বাজার। অনুষ্ঠানে আরও উপ’স্থিত ছিলেন সিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) এম এ মাসুদ, বিদ্যানন্দের বোর্ড মেম্বার নাফিজ চৌধুরী ও জামাল উদ্দিন এবং সিএমপির জ্যে’ষ্ঠ কর্মকর্তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.