বিশ্বকাপ ফুটবলের মূল পর্ব শুরুর আগে আগামী মাসে দোহায় অনুষ্ঠিত হবে পথশিশুদের বিশ্বকাপ। অক্টোবরে অনু’ষ্ঠিতব্য এ আয়োজনে মোট ২৬টি দেশ অংশ নে’বে। এর মধ্যে বাংলাদেশও রয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকাস্থ ব্রিটিশ হা’ইকমিশন দোহাগামী পথশি’শুদের নিয়ে এক অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

 

পথশিশুদের নিয়ে কাজ করে লি’ডো। এ সংস্থাটি পথের জীবন থেকে শিশুদের সামাজিক জীবনে ফে’রানোর চেষ্টা করে। শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ নানা সু’বিধা প্রদানের চেষ্টা করে তারা। এর আগে, পথশিশুরা ক্রিকেট বিশ্বকাপে অংশ নেয়।

 

সেই বিশ্বকাপ খেলে আসা নি’জাম বলে, ‘আমাদের জীবন পথে পথে কে’টেছে। আমাদের কেউ দেখার ছিল না। এই লিডোর মাধ্যমে আমরা এখন সামাজিক একটা ম’র্যাদা পেয়েছি। বাংলাদেশকে বিশ্ব ম’ঞ্চে প্রতিনিধিত্ব করেছি। ’

 

পথশিশুদের অধিকার নিয়ে তিন দশক ধরে কাজ করছেন ফরহাদ হোসেন। ২০০০ সালে প্রতিষ্ঠিত লিডোর স’ঙ্গেও তিনি রয়েছেন। পথশিশুদের সম্প’র্কে ফরহাদ বলেন, ‘পথশিশুদের প্রতি মানুষের ধারণা বদলা’তে শুরু করেছে।

 

পথশিশুরা নিজেরাও এখন সামাজিক অধিকারের জন্য সচে’ষ্ট। আমরা সংগঠনের পথ চেষ্টা করি তাদের সাধারণ জীবনের স্বা’দ দেওয়ার। পথশিশু নারী দলকে উৎ’সাহ দিতে ব্রিটিশ হাইকমিশনে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় নারী ফুটবল দলের দুই ফুটবলার।

 

পথশিশু নারী দলের প্রশিক্ষক নাজমাও একজন পথশিশু। তাকে এএফসির সি লাইসেন্স কো’চিংয়ে সুযোগ দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। নাজমা তার দল নিয়ে বলেন, ‘এ দলটি কয়েক মাস ধরে অনুশী’লন করছে। আশা করি কাতারে আমরা ম্যাচ জি’ততে পারব।

 

ব্রিটিশ হাইকমিশনে অনুষ্ঠিত আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি হাইকমিশনার জাভেদ প্যাটেল, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন, লিডো, বিভিন্ন পৃষ্ঠপোষক ও সামাজিক সংস্থাগুলো। পথশিশুদের এ বিশ্বকাপটি সেভেন এ সাইড ফরম্যাটে অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.