আসন্ন ফুটবল বিশ্বকাপে দেশ-বিদেশের ভ’ক্ত-সম’র্থকদের যাতায়াত সহজ করতে বিমান ভাড়া ক’মানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে আরব আমিরাত ও গালফ ক্যারিয়ারস বিমান কর্তৃপ’ক্ষ। পাশাপাশি নিজেদের বহরে ফ্লাইটের সংখ্যাও বাড়ানো হবে জানিয়েছে তারা। বিশ্বকাপের এক মাস অন্য সময়ের চেয়ে কম ভাড়ায় কাতারের রাজধানী দোহায় যেতে পারবেন দর্শ’করা।

 

আগামী ২০ নভেম্বরের দুবাই থেকে দোহার বিমান ভা’ড়া এখন ১৭০০ দিরহামের কিছু বেশি ধ’রা হয়েছে। যা বর্তমানে প্রায় ২২০০ দিরহামের কাছাকাছি। এছাড়া আবুধাবি থেকে দোহা যেতে বিমানে গুনতে হবে এক হাজার থেকে ছয় হাজার দিরহাম। রিয়াদ ও জেদ্দা থেকে বিমান ভাড়া পড়বে ১৪০০ দিরহামের কাছাকাছি। আরব আমিরাতভি’ত্তিক সংবাদমাধ্যম গালফ নিউজের প্রতিবেদনে জানা গেছে এই খবর।

 

গালফ ক্যারিয়ারের মধ্যে সবশেষ এয়ারলাইন্স হিসেবে বিশ্বকাপের সময় বাড়তি ফ্লাইট চা’লানোর সি’দ্ধান্ত নিয়েছে এয়ার এরাবিয়া। বিশ্বকাপ চলাকালীন প্রতিদিন শারজাহ থেকে দোহায় ১৪টি শা’টল ফ্লাইট পরিচালনা করবে তুলনামূলক কম খরচের এই এয়ারলাইন্স।

 

ইতিহাদ এয়ারওয়েজ বিশ্বকাপ চলাকালীন প্রতি সপ্তাহে আবুধাবি থেকে দোহায় ৪২টি ফ্লাইট পরিচালনা করবে। যেখানে বর্তমানে তারা এই রু’টে সপ্তাহে মাত্র ১৮টি ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে। পুরো আসরজুড়ে প্রায় ১২ লাখ বিদেশি দ’র্শক কাতারে যাবেন খেলা দেখতে।

 

মাসদুয়েক আগেও মিডল ইস্ট থেকে দোহার বিমানভাড়া ছিল ৭ হাজার দিরহামেরও বেশি। তবে এখন বদ’লে গেছে সেই পরিস্থিতি। ফ্লাই দুবাই ও সৌদিয়া কর্তৃপ’ক্ষ মাসব্যাপী এই আসরের জন্য শাটল ফ্লাইট পরিচালনার ঘোষণা দিয়েছে। গালফ ক্যারিয়ারের বাইরে পাকিস্তা’ন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সও (পিআইএ) বিশ্বকাপের জন্য বাড়তি ফ্লাইট চালানোর সুযো’গটি নিতে চাচ্ছে।

 

তারা জুলাই থেকেই করা’চি ও লাহোর থেকে দোহার কানে’ক্টিং ফ্লাইট পরিচালনা করবে। ফ্লাই দুবাই কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ম্যাচের দিন শাটল ফ্লা’ইতে ভ্রমণের জন্য ইকোনমি ক্লাসে ন্যুনতম ৯৫০ দিরহাম ও বিজনেস ক্লাসে ন্যুনতম ৩৬৬৫ দিরহাম দিয়ে আসন নি’শ্চিত করতে হবে। এই টিকিটের মূল্যের স’ঙ্গেই হালকা খাবারের ব্যবস্থা করবে ফ্লাই দুবাই।

 

তবে এসব শাট’ল ফ্লাইটে কোনো ব্যা’গেজ ক্যারিয়ার থাকবে না। অর্থাৎ ভ্রমণকারীদের নিজেদের হাত ব্যাগেই সব বহন করতে হবে। এক্ষে’ত্রে ইকোনমি ক্লাসে একজন সর্বোচ্চ ৭ কেজি ও বিজনেস ক্লাসে সর্বোচ্চ ১৪ কেজি নিয়ে ভ্রমণ করতে পারবেন। শাট’ল ফ্লাইটে ভ্রমণের জন্য অবশ্যই বিশ্বকাপের ম্যাচের টিকিটধারী হতে হবে।

 

পাশাপাশি বিশ্বকাপের ফ্যান আই’ডি হায়া কার্ডও সংগ্র’হে রাখতে হবে। এই হায়া কার্ড দেখিয়েই কাতারে এবং স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে হবে। আগামী ২১ নভেম্বর থেকে ১৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত দুবাই ওয়ার্ল্ড সেন্টার থেকে সব শা’টল ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.