কাতারে আজ সকালে স্কুল বাসের মধ্যে আটকা পড়ে চার বছরের এক ভারতীয় প্রবাসী কিশোরীর মৃত্যু হয়েছে। মিনসা মারিয়াম জ্যাকব নামের ওই ভারতীয় ছাত্রী ওয়াকরার একটি কিন্ডারগার্টেনে লেখাপড়া করতো।

 

পরিবারের ঘনিষ্ঠরা জানায়, মিনসা মারিয়াম জ্যাকব ওয়াকরার একটি কেজি স্কুলে পড়তো। স্কুলে যাওয়ার পথে বাসের মধ্যেই ঘুমিয়ে পড়ে চার বছরের শিশুটি। বাসের কর্মীরা খেয়াল করেনি অন্য ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে শিশুটি নামেনি।

 

ভেতরে শিশুটির উপস্থিতি টের না পেয়ে তালাবদ্ধ বাসটি খোলা জায়গায় দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। সকাল সাড়ে ১১টায় আবার ডিউটি ​​শুরু করার জন্য বাসে ফিরলেই বাসের কর্মীরা শিশুটিকে ভেতরে দেখতে পান। ততক্ষণে শিশুটি মারা গেছে।

 

মিনসাকে তাড়াহুড়ো করে ওয়াকরা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, তবে তার জীবন বাঁচানো যায়নি। শিশুটির মৃত্যুর সঠিক কারণ এখনো জানা যায়নি। রবিবার কাতার জুড়ে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে ৪৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেঞ্জের মধ্যে।

 

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। মিনসা মারিয়াম জ্যাকব দক্ষিণ ভারতের কেরালা রাজ্যের অভিলাষ চাকো এবং সৌম্য চাকোর দ্বিতীয় কন্যা।

 

এই দম্পতির বড় মেয়ের নাম মিখা জ্যাকব। আজ তার চতুর্থ জন্মদিন ছিল। আর এমন দিনেই দুঃখজনক ভাগ্যের মুখোমুখি হতে হলো পরিবারকে।

 

শোকাহত পরিবারের বন্ধুদের থেকে জানা যায়, আগামী দিন সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে মরদেহ নিজ দেশে নিয়ে যাওয়ার আশা করছেন তারা। আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলে মিনসার মরদেহ ভারতে নিয়ে যাওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.