কাতারে বেসরকারি কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষার্থী মিনসা মারিয়াম জ্যাকবের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে কাতারের শিক্ষা ও উচ্চ শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ইতিমধ্যে মন্ত্রণালয় উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

 

তদন্তের ফলাফলের ভিত্তিতে মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক দোষীদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা নেবে বলে জানানো হয়েছে। শিক্ষার্থীদের জন্য সর্বোচ্চ মানের নিরাপত্তা এবং নিরাপত্তার মান মেনে চলার ব্যাপারে কোনো ত্রুটি সহ্য করা হবেনা বলে জানিয়েছে কাতারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

 

নিহত ছাত্রী মিনসা মারিয়াম জ্যাকবের পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করেছে কাতার। উল্লেখ্য, কাতারে আজ সকালে স্কুল বাসের মধ্যে আ’টকা পড়ে চার বছরের এক ভারতীয় প্রবাসী কিশোরীর মৃ’ত্যু হয়েছে। রোববার জন্মদিনে শিশুটির মৃত্যু হয়।

 

মিনসা মারিয়াম জ্যাকব নামের ওই ভারতীয় ছাত্রী ওয়াকরার একটি কিন্ডারগার্টেনে লেখাপড়া করতো। জানা যায়, মিনসা মারিয়াম জ্যাকব কাতারের ওয়াকরার একটি কেজি স্কুলে পড়তো। স্কুলে যাওয়ার পথে বাসের মধ্যেই ঘুমিয়ে যায় মিনসা।

 

বাসের কর্মীরা খেয়াল করেনি অন্য ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে শিশুটি নামেনি। ভেতরে শিশুটির উপস্থিতি টের না পেয়ে তালাবদ্ধ বাসটি খোলা জায়গায় দাঁড় করিয়ে রাখা হয়।

 

সকাল সাড়ে ১১টায় আবার ডিউটি ​​শুরু করার জন্য বাসে ফিরলেই বাসের কর্মীরা শিশুটিকে ভেতরে দেখতে পান। ততক্ষণে শিশুটি মারা গেছে। দ্রুত মিনসাকে ওয়াকরা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও তাকে বাঁচানো যায়নি।

 

নিহত ছাত্রীর পরিবার সুত্রে জানা যায়, আগামীকাল সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে ম’রদেহ নিজ দেশ ভারতে নিয়ে যাওয়া হবে। এদিকে স্কুলছাত্রী মিনসা মারিয়াম জ্যাকবের অনাকাঙ্ক্ষিত মৃ’ত্যুতে কাতারজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.