মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম ধনী দেশ হল কাতার। যেখানে বাংলাদেশের অসংখ্য প্রবাসী থাকেন এবং বিভিন্ন জাগায় কাজ করেন। প্রতিবারের ন্যায় এবারও পূর্বের ঘোষণা অনুযায়ী পরিবর্তন আনা হয়েছে গ্রীষ্মকালে বাহিরে কাজ করার নিয়মটি।

 

কাতারের শ্রম মন্ত্রনালয় সোশ্যাল মিডিয়ায় এক বিবৃতিতে জানায়, বাতাস চলাচলের উপযুক্ত উপায় নেই এমন খোলা এবং ছায়াযুক্ত জায়গায় সকালের কাজ নিষি’দ্ধ করার আইনি সময়কাল ১৫ সেপ্টেম্বর শেষ হবে। ফলে আজ থেকে এই নিষেধাজ্ঞা আর কার্যকর থাকছে না।

 

কাতারের শ্রম মন্ত্রনালয় গতকাল ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে খোলা জায়গায় গ্রীষ্মকালীন কাজের সময় শেষ করার ঘোষণা দিয়েছে। তাই এখন থেকে শ্রমিকরা খোলা জায়গায় কাজ করতে পারবে। যদিও কাতারে এখনো প্রচন্ড গরম রয়েছে।

 

কাতার ২০১৭-এর শ্রম আইনের ১৬ নং সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, কাতারে প্রতিবছর গরম মৌসুমে ১ জুন থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত খোলা জায়গায় কাজ করা শ্রমিকদের জন্য বেলা সাড়ে ১০:৩০ থেকে ৩ টা পর্যন্ত কাজ করা নিষিদ্ধ ছিল।

 

এই সময়ে শ্রমিকদের জন্য বিরতি দেওয়া বাধ্যতামূলক করা ছিল। কাতারে গরমকালে বাইরে কাজের সময়সীমা শেষ হয়েছে গতকাল। বছরের এই সাড়ে তিন মাস প্রচন্ড গরমের সময়ে শ্রমিকদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাতার এমন পদক্ষেপ নিয়েছিল, শ্রম মন্ত্রণালয়।

 

নিয়ম মোতাবেক এখন থেকে কোম্পানীগুলো খোলা রোদে শ্রমিকদের কাজ করাতে পারবে। নাকরার সেই নিয়মটি গতকাল ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে শেষ হয়েছে। এ বছর নিয়ম লঙ্ঘনকারী ৪৮টি কোম্পানির বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিয়েছে শ্রম মন্ত্রণালয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.