ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যে যাচ্ছেন বিশ্ব নেতারা। বাদ যায়নি কাতারও। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃ’ত্যে অংশ নিতে ব্রিটিশ রাজধানী লন্ডনের উদ্দেশে শনিবার সকালে দোহা ত্যা’গ করেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল-থানি।

 

শুক্রবার ব্রিটিশ পররাষ্ট্র দফতরের একটি সূত্র জানিয়েছে, সোমবার রানি এলিজাবেথের শেষকৃত্যে প্রায় ২০০টি দেশ ও অঞ্চলের প্রতিনিধিত্বকারী প্রায় ৫০০ অতিথি উপস্থিত থাকবেন।

 

প্রায় ১০০ জন রাষ্ট্রপতি, সরকার প্রধান এবং ২০ জনেরও বেশি রাজপরিবারের সদস্যরা অংশ নেবেন বলে সূত্রটি জানিয়েছে।  কাতারের আমির ছাড়াও অতিথিদের মধ্যে রয়েছেন বাহরাইনের ক্রাউন প্রিন্স এবং ওমানের সুলতান। ওমানের সুলতান হাইথাম বিন তারেক ইতিমধ্যেই লন্ডন পৌঁছেছেন।

 

দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা বলছে, রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃ’ত্যুতে শো’ক প্রকাশ ও রাজা তৃতীয় চার্লসকে অভিনন্দন জানাতে শুক্রবার যুক্তরাজ্যে পৌঁছান সুলতান।

 

তার সফর সঙ্গী হিসেবে আরো আছেন রয়্যাল কোর্টের দেওয়ান মন্ত্রী সাইয়্যেদ খালিদ বিন হিলাল আল বুসাইদি এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রী সাইয়্যেদ বদর বিন হামাদ আল বুসাইদি। সৌদি রাজপরিবারের প্রতিনিধিও থাকবেন বলে সূত্রটি জানিয়েছে।

 

সোমবার শেষকৃত্যের সেই আয়োজনে যোগ দিতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী, জাপানের রাজা-রানি, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট, কাতার, ওমান, ইসরায়েল, ভুটানসহ বিভিন্ন দেশের নেতারা লন্ডনে যাচ্ছেন।

 

ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবিতে রানিকে শ্র’দ্ধা ও বিদায় জানাতে যাবেন বিশ্ব নেতারা; কিন্তু সেখানে উন্মুক্ত শেষকৃত্যানুষ্ঠান ঘিরে স্থায়ী কোনো নিরাপত্তা বেষ্টনী না থাকায় বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.